গোপালপুরে মুচলেকা ভেঙ্গে বাল্যবিয়ে কনের মা সহ ৮জন জেলে

গোপালপুর প্রতিনিধি : বাল্যবিয়ে না দেয়ার শর্তে ভ্রাম্যমান আদালতের মুচলেকা ভেঙ্গে বিয়ে পড়ানোর অভিযোগে গোপালপুরে কনের মাসহ ৮জনকে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে থানা পুলিশ। নগদাশিমলা ইউনিয়নের বনমালী গ্রামে বাল্যবিয়ের আসর থেকে তাদের গ্রেফতার করে শনিবার সন্ধ্যায় জেলহাজতে পাঠানো হয়।

গোপালপুর থানার ওসি হাসান আল মামুন জানান, বনমালী গ্রামের আইয়ুব নবীর স্কুল পড়–য়া মেয়ে আম্বিয়া খাতুন মীমের (১৬) সাথে কুমুল্লী উত্তর পাড়ার মৃত আ. গণীর ছেলে হাশেম আলীর (২৮) বিয়ে ঠিক হয়। খবর পেয়ে গত বৃহস্পতিবার বিকালে পুলিশ কনের মা-বাবাসহ পরিবারের লোকজনকে আটক করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দিলরুবা শারমীন এর কার্যালয়ে নিয়ে যান। পরে ভ্রাম্যমান আদালতে মেয়ের বাবা আইয়ুব নবী ও মা জায়দা বেগম বাল্য বিয়ে না দেওয়ার মুচলেকা দিয়ে ছাড়া পান।

এদিকে কনের বাবা ভ্রাম্যমান আদালতের মুচলেকা ভেঙ্গে পরদিন শুক্রবার রাতে নিজ বাড়িতে ঘটাকরে পুনরায় সেই বিয়ের আসর বসান। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টায় পুনরায় তাদের আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

পরদিন বিকালে স্থানীয় ইউপি সদস্য আয়নাল হক বাদী হয়ে কনের বাবা মাসহ ১১জনকে আসামী করে বাল্যবিয়ে নিরোধ আইনে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ শনিবার সন্ধ্যায় কনের মাসহ ৮জনকে জেল হাজতে পাঠায়। বাকী আসামীরা পলাতক। তাদের গ্রেফতারের চেষ্ঠা চলছে।

Related Articles