ভূঞাপুরে এইচএসসি ব্যবহারিক পরীক্ষার নামে বানিজ্যের অভিযোগ!

অভিজিৎ ঘোষ : টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে চলতি এইচএসসি পরীক্ষার পর শুরু হয়েছে বিষয়ভিত্তিক ব্যবহারিক পরীক্ষা। এই সুযোগে ব্যবহারিক পরীক্ষায় উপজেলার নিকরাইল শমসের ফকির ডিগ্রী কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীর কাছ থেকে ৫০০টাকার অধিক আদায় করা হচ্ছে। টাকা আদায়ের বিষয়টি স্বীকার কলেজ কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে, উপজেলার নিকরাইল শমসের ফকির ডিগ্রী কলেজ কেন্দ্রে এইচএসসি ব্যবহারিক পরীক্ষায় গত শনিবার থেকে শুরু হয়েছে। ৪টি বিষয়ের উপর ব্যবহারিক পরীক্ষার জন্য পরীক্ষার্থীর কাছ থেকে আদায় করা হচ্ছে ৫০০টাকা করে। ওই ভেন্যুতে শমসের ফকির কলেজ ছাড়াও কালিহাতী উপজেলার হাতিয়া কলেজের শিক্ষার্থীরা রয়েছে। শনিবার ৫শ টাকা না দেয়ায় হাতিয়া কলেজের ১৫জন পরীক্ষার্থী ব্যবহারিক পরীক্ষায় অংশগ্রহন করেনি। এরআগে টাকা লেনদেন নিয়ে কলেজ কর্তৃপক্ষের সাথে শিক্ষার্থীদের বাগবিতন্ডা শুরু হয়। এক পর্যায়ে শিক্ষার্থী পরীক্ষা বর্জন করে কলেজ ত্যাগ করে।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, ব্যবহারিক পরীক্ষা দিতে রুমে প্রবেশের আগেই টাকা আদায় করছে দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষকরা। কারো কাছ থেকে ৫শ আবার কারোর কাছে ৬/৭শ টাকা পর্যন্ত আদায় করছে। যারা টাকা দিতে পারেনি তারা পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারেনি।

পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে টাকা আদায়ের কথা স্বীকার করে নিকরাইল শমসের ফকির ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুছ ছাত্তার জানান, ব্যবহারিক পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে বিষয় ভিত্তিক একশ টাকা করে আদায় করা হচ্ছে। এই টাকা থেকে প্রতি বিষয়ের জন্য বোর্ডে ৫০টাকা এবং বাকি টাকা কলেজের আসবাবপত্র, আপ্যায়নের জন্য ব্যয় করা হয়েছে।

Related Articles