নাগরপুরে বড় ভাইকে পানিতে ফেলে হত্যা মামলায় ছোট ভাইয়ের তিন মেয়ে গ্রেফতার

নাগরপুর প্রতিনিধি : টাঙ্গাইলের নাগরপুরে জমিজমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে বড় ভাইকে পানিতে ফেলে হত্যা ঘটনায় দায়ের করা মামলায় ছোট ভাইয়ের তিন মেয়েকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। মঙ্গলবার গভীর রাতে উপজেলার চৌধুরীডাঙ্গা গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে এদেরকে গ্রেফতার করেছে। তবে এ হত্যা ঘটনার মুলহোতা ছোট ভাই সুরেশ শীল ঘটনার পর থেকে আত্ম গোপন করায় তাকে গ্রেফতার করা যায়নি। গ্রেফতারকৃতরা এজাহার নামীয় আসামী বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে। গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে, সুরেশ শীলের মেয়ে সূবর্ণা শীল(১৯), সঞ্জিতা শীল(১৫), তৃষ্ণা শীল(১২)।

নাগরপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) খান মোহাম্মদ হাসান মোস্তফা জানান, উপজেলার চৌধুরী ডাঙ্গা গ্রামের পলান চন্দ্র শীলের দুই ছেলে আনন্দ শীল (৬০) ও সুরেশ শীল (৪৫) এর মধ্যে জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল দীর্ঘদিন ধরে। মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে বাড়ির সীমানা লাগোয়া পুকুর পাড়ে একটি বনজ কাটা গাছের মালিকানা নিয়ে উভয়ের মধ্যে বাক-বিতন্ডা শুরু হয়। এর এক পর্যায়ে ছোট ভাই সুরেশ শীলের পরিবারের লোকজনসহ বড় ভাইয়ের ওপর চড়াও হয়। প্রথমে ছোট ভাই (সুরেশ শীল) তার বড় ভাই অনন্দ শীলকে গলা টিপে শ্বাস রোধ করে পরে পুকুরের পানিতে ফেলে দিয়ে হত্যা করে। ঘটনার রাতে নিহতের ছেলে রাম প্রসাদ শীল বাদী হয়ে ৫ জনের নাম উল্লেখ করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। মামলার পরিপ্রেক্ষিতে নাগরপুর থানার উপ পরিদর্শক মো. শাহজাহানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ওই রাতেই অভিযান চালিয়ে তিনজনকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃতদের বুধবার সকালে কোর্টের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরন করা হয়েছে।

Related Articles