এলেঙ্গায় মোবাইল মেকানিক আতিকুরের রহস্যজনক মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক : টানা দশদিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লরে আতিকুর রহমান আরিফ (২৬) নামের এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন ভাড়া বাসা থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে নিবির পর্যবেক্ষন কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় রোববার সকালে তার মৃত্যু হয়। নিহত আতিকুর টাঙ্গাইল সদর উপজেলার গালা ইউনিয়নের সদুল্যাপুর গ্রামের মিজানুর রহমান মজনুর ছেলে। তিনি এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন তারিফ টেলিকম এন্ড মোবাইল সার্ভিসিংয়ে মোবাইল মেকানিকের কাজ করতেন।

নিহতের চাচাতো ভাই সেলিম রেজা জানান, গত বুধবার দুর্বৃত্তরা আতিকুরকে শ্বাস রোধ করে হত্যার চেষ্টা করে। এসময় আতিকুরের মৃত্যু হয়েছে ভেবে বিছানার উপর কম্বল, বালিশ, কাথা দিয়ে পেচিয়ে রেখে যায়। ঘটনার দিন বিকেলে বাসার কাজের মহিলা এসে ঘরের তালা খুলে ভিতরে ঢুকে আতিকুরকে কম্বল, বালিশ, কাথা দিয়ে পেচানো অবস্থায় দেখতে পেয়ে চিৎকার শুরু করেন। পরে স্থানীয় লোকজন এসে আতিকুরকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে তার অবস্থার অবনতি হলে পরিবারের লোকজন উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রথমে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে এবং পরের দিন বৃহস্পতিবার একটি বেসরকারী হাসপাতালে ভর্তি করেন। রোববার ঢাকার প্রশান্তি হাসপাতালে নিবির পর্যবেক্ষন কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

কালিহাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর মোশারফ জানান, এ ব্যপারে নিহতের বাবা মিজানুর রহমান মজনু বাদি হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

এদিকে নিহতের ময়না তদন্ত শেষে রোববার রাত ১১টায় গালা খেলার মাঠে জানাযা শেষে কেন্দ্রিয় কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন করা হয়।

জানাযা অনুষ্ঠানে মুক্তিযোদ্ধা আলী হোসেন এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে নিহতের হত্যার রহস্য উন্মোচন করে হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

Related Articles