চীন থেকে দুই স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ পাকিস্তানের, নজরদারির আশঙ্কায় ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মিত্র দেশ পাকিস্তানের জন্য চীনের উৎক্ষেপণ করা দুটি স্যাটেলাইট দিয়ে ভারতের ওপর নজরদারি করা হতে পারে বলে আশঙ্কা করছে দেশটি।

স্থানীয় সময় বেলা ১১টা ৫৬ মিনিটে লংমার্চ-২সি রকেটে করে উপগ্রহ দুটি তাদের কক্ষপথে স্থাপন করা হয়।

চীনের বাইরের কোনো দেশের জন্য চীনা পদ্ধতিতে তৈরি এটি ১৭তম স্যাটেলাইট।

এ দুটি স্যাটেলাইট পাকিস্তানের জন্য নতুন দিগন্ত খুলে দেবে বলে দেশটির সরকারের বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।

পিআরএসএস-১ চীনের তৈরি করা প্রথম রিমোট নিয়ন্ত্রিত স্যাটেলাইট। এটি যা পাকিস্তানের কাছে বিক্রি করা হয়েছে৷

স্যাটেলাইটটি পাকিস্তানের প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের আগাম বার্তা দেবে। সেই সঙ্গে কৃষিক্ষেত্রেও কাজে লাগানো হবে এর মাধ্যমে পাঠানো চিত্রগুলো।

অন্যদিকে পাক টেস-১ এ স্যাটেলাইটটি তৈরি করেছে পাকিস্তান মহাকাশ গবেষণা সংস্থা পাকিস্তান স্পেস অ্যান্ড আপার অ্যাটমোস্ফিয়ার রিসার্চ কমিশন৷ তবে এটি চীনা মহাকাশ যানের মাধ্যমে মহাকাশে পাঠানো হয়েছে৷ স্যাটেলাইটটির মাধ্যমে চীন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডরের (সিপিইসি) ওপর কড়া নজর রাখতে পারবে দুই দেশ৷

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, স্যাটেলাইট দুটির মাধ্যমে বিভিন্ন বিষয়ের পুঙ্খানুপুঙ্খ চিত্র পৌঁছে যাবে বেইজিং ও ইসলামাবাদের কাছে৷ তবে ভারতের কর্মকর্তারা আশঙ্কা করছেন, এর মাধ্যমে তাদের ওপরও নজর রাখা হবে।

এর আগে ২০১১ সালে সর্বশেষ পাকিস্তানকে সাহায্য করার জন্য মহাকাশে স্যাটেলাইট পাঠিয়েছিল চায়না অ্যাকাডেমি অব স্পেস টেকনোলজি৷

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত সমঝোতা স্মারকের ভিত্তিতে সিপিইসি নির্মাণকাজ শুরু হয়েছে৷ চীনের প্রস্তাবিত ওয়ান বেল্ট, ওয়ান রোড (ওবিওআর) নীতির আওতায় এই মহাসড়ক নির্মাণ করা হচ্ছে৷

সিপিইসি মূলত দুই হাজার কিলোমিটার দীর্ঘ এক মহাসড়ক। এর মাধ্যমে পাকিস্তানের গদর বন্দর থেকে চীনের শিনজিং প্রদেশ পর্যন্ত সংযোগ তৈরি হবে। সূত্র: জি নিউজ ও সংবাদ প্রতিদিন

Related Articles