আজকেও বাস ছেড়ে যায়নি টাঙ্গাইল থেকে: সিএনজি চালিত অটোরিক্সার ভাড়া দ্বিগুন

নিজস্ব প্রতিবেদক : দ্বিতীয় দিনেও টাঙ্গাইল থেকে কোন রুটে বাস চলাচল করেনি। এ কারনে ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়ক ছিল পুরোটাই ফাঁকা। আজ শনিবার (৪ আগস্ট) দুপুরে মহাসড়কে গিয়ে দেখা যায় দুই-একটি ট্রাক ও ব্যক্তিগত গাড়ি ছাড়া কোন বাস চলাচল করতে দেখা যায়নি।

শহরের নতুন বাস স্ট্যান্ডে গিয়ে দেখা যায় সাধারণ যাত্রীরা বাস না থাকায় সিএনজি চালিত অটোরিক্সাযোগে দ্বিগুন ভাড়া দিয়ে তাদের গন্তব্যে যাচ্ছে। কেউ কেউ আবার বাস না থাকায় বাড়ি ফিরে যাচ্ছে।

কালিহাতী উপজেলার ইছাপুর গ্রামের আবুল কাশেম। তিনি টাঙ্গাইল শহরের একটি প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার অপারেটর হিসেবে চাকুরী করেন। তিনি জানান, টাঙ্গাইল যাওয়ার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হই। কিন্তু কোন বাস না চলার কারনে বাধ্য হয়ে ২০ টাকার (বাস) ভাড়া ১৫০ টাকায় সিএনজি চালিত অটোরিক্সায় টাঙ্গাইল শহরে আসেন।

নতুন বাসস্ট্যান্ডে কথা হয় শহরের সাবালিয়া এলাকার ব্যবসায়ী হারুন অর রশীদের সাথে। তিনি ঢাকায় যাবেন ডাক্তার দেখানোর জন্য। তিনি জানান, অঘোষিত বাস ধর্মঘটের কারনে তাদের মতো সাধারণ মানুষ এখন বিপাকে পড়েছে। তিনি জানান, ডাক্তার আজই দেখাতে হবে, তাই বাধ্য হয়ে সাড়ে তিন হাজার টাকায় একটি প্রাইভেটকার ভাড়া করে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন।

টাঙ্গাইল বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক রাশেদুর রহমান তাবিব মজলুমের কণ্ঠকে জানান, ফেডারেশনের নির্দেশে এবং চালক ও শ্রমিকদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করেই বাস চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। চলমান পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পর বাস চলাচল আবার শুরু হবে।

Related Articles