নাগরপুরে গৃহবধুর রহস্যজনক মৃত্যু: পরিবারের দাবি হত্যা

নাগরপুর প্রতিনিধি : টাঙ্গাইলের নাগরপুরে জিয়াসমিন আক্তার (২১) নামে এক গৃহবধুর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। বৃহষ্পতিবার সকালে উপজেলার গয়হাটা ইউনিয়নের বিনোদবকুটিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের স্বজনরা ঘটনাটি পরিকল্পিতি হত্যাকান্ড বলে অভিযোগ করছেন। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্ত্রের জন্য মর্গে প্রেরন করেছে।

এলাকাবাসি ও পরিবার সূত্রে জানা যায় মামুদনগর দক্ষিন হাজী পাড়া গ্রামের আ.গফুর মিয়ার মেয়ে জিয়াসমিন আক্তারের ৩ বৎসর আগে উপজেলার গয়হাটা ইউনিয়নের বিনোদবকুটিয়া গ্রামের আনোয়ার দেওয়ানের পুত্র মো. মামুন মিয়ার সাথে বিয়ে হয়।

নিহতের বাবা আ. গফুর মিয়া বলেন , বিয়ের পর থেকেই বিভিন্ন কারণে আমার মেয়েকে অমানুষিক নির্যাতন করা হতো। ঘটনার দিন সকালে দাম্পত্য কলহ নিয়ে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়্। একপর্যায়ে আমার মেয়ে জিয়াসমিন আক্তারকে বেদম প্রহার করে বলেও জানাই, তিনি আরো বলেন আমার মেয়ে অবস্থাবেগতি দেখে জিয়াসমিন আক্তারকে তরিঘরি করে নাগরপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। জিয়াসমিন মারা গেছে জানতে পেরে লাশ হাসপাতালে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।

নাগরপুর থানার পুলিশের উপ-পরিদর্শক এস আই আব্দুল হক জানান, নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রির্পোট পাওয়ার পর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Related Articles