টাঙ্গাইলে কাদের সিদ্দিকীসহ ১৪জনের মনোনয়নপত্র বাতিল (ভিডিও সহ)

নিজস্ব প্রতিবেদক : ব্যাংকে ঋন খেলাপির অভিযোগে ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম প্রধান নেতা কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি আব্দুল কাদের সিদ্দিকী বীরউত্তমের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

টাঙ্গাইলের আটটি আসনে আরো ১২জনের মনোনয়ন বাতিল হয়েছে। এর মধ্যে টাঙ্গাইল-১ (মধুপুর-ধনবাড়ী) আসনে বিএনপির মনোনিত প্রার্থী ফকির মাহবুব আনাম স্বপন, টাঙ্গাইল-৬ (নারগপুর-দেলদুয়ার) আসনে বিএনপির প্রার্থী সাবেক প্রতিমন্ত্রী নুর মোহাম্মদ খান রয়েছে। ঋন খেলাপির কারনে এ দু’জনের মনোনয়ন বাতিল হয়।

মনোনয়ন বাতিল হওয়া অন্যরা হচ্ছেন, টাঙ্গাইল-৩ (ঘাটাইল) আসনে ন্যাশনাল পিপলস পার্টির মোঃ চান মিয়া, বিএনএফ-এর আতাউর রহমান, টাঙ্গাইল-৪ (কালিহাতী) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী বাকির হোসেন ও আবুল কাশেম, টাঙ্গাইল-৬ (নাগরপুর-দেলদুয়ার) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী এম আশরাফুল ইসলাম ও বিএনএফ-এর প্রার্থী সুলতান মাহমুদ, টাঙ্গাইল-৭ (মির্জাপুর) আসনে খেলাফত মজলিসের প্রার্থী সৈয়দ মজিবুর রহমান, টাঙ্গাইল-৮ (সখীপুর-বাসাইল) আসনে জাতীয় পার্টির কাজী আশরাফ সিদ্দিকী, খেলাফত মজলিসের আব্দুল লতিফ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী কাজী শহিদুল ইসলামের মনোনয়ন বাতিল হয়েছে।
টাঙ্গাইলের জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মোঃ শহীদুল ইসলাম রোববার দুপুরে যাচাবাছাইকালে ঋন খেলাপিসহ বিভিন্ন ত্রুটির কারনে এই মনোনয়নপত্র বাতিল করেন। কাদের সিদ্দিকী টাঙ্গাইল-৮ (সখীপুর-বাসাইল) এবং টাঙ্গাইল-৪ (কালিহাতী) আসন থেকে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন।
কাদের সিদ্দিকীর মনোনয়ন বাতিল হলেও টাঙ্গাইল-৮ আসনে তার মেয়ে কুঁড়ি সিদ্দিকী এবং কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান তালুকদার বীরপ্রতীকের মনোনয়নপত্র বৈধ হয়েছে। এছাড়া টাঙ্গাইল-৪ আসনে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের প্রার্থী কাদের সিদ্দিকীর ছোট ভাই আজাদ সিদ্দিকী ও লিয়াকত আলীর মনোনয়ন বৈধ হয়েছে।
টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসকের সভাকক্ষে যাচাবাছাই চলাকালে কাদের সিদ্দিকীর ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান সোনার বাংলা প্রকৌশল সংস্থা ঋন খেলাপির তালিকায় আছে বলে অগ্রনী ব্যাংক টাঙ্গাইল শাখার সহকারি মহাব্যবস্থাপক মোঃ নাজিম উদ্দিন রিটার্নিং কর্মকর্তাকে জানান। এসময় রিটার্নিং কর্মকর্তা কাদের সিদ্দিকীর বক্তব্য জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার বলার তেমন কিছু নেই। অনেক বড় অর্থশালী মানুষ সালমান এফ রহমানের চার হাজার ৫৪৩ কোটি টাকা ২৫ বছরের জন্য বিনা সুদে ব্লক করা আছে। এটা সত্য যে ব্যাংক আমাদের কাছে টাকা পায়। আমরা সে টাকা দেয়ার জন্য প্রস্তুত আছি। এ নিয়ে তিনবার ভোটে দাড়ানো থেকে বঞ্চিত হলাম। তিনি ব্যাংকের ঋন পরিশোধের জন্য কি কি প্রচেষ্টা করেছেন, তার বর্ণনা দিয়ে বলেন, ‘যতক্ষন এ সরকার থাকবে, এ ধরনের সরকার থাকবে, আমি হয়তো ভোটে দাড়াতে পারবো না। তবে একজন নাগরিক হিসেবে আমার প্রচেষ্টা থাকবে।’ মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়ার পর এক প্রশ্নের জবাবে কাদের সিদ্দিকী বলেন, যা হয়েছে সব সরকারের ইচ্ছাতেই হয়েছে। তিনি এ ব্যাপারে আপিল করবেন বলেও জানান।
কাদের সিদ্দিকীর বড় ভাই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সাবেক সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকীর টাঙ্গাইল-৪ আসনে এবং ছোট ভাই মুরাদ সিদ্দিকীর টাঙ্গাইল-৫ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে দেয়া মনোনয়নপত্র বৈধ হয়েছে।

Related Articles