টাঙ্গাইল ক্লিনিক অ্যান্ড হসপিটাল থেকে ভূয়া চিকিৎসক আটক: ছয় মাসের কারাদন্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক : টাঙ্গাইল শহরের কুমুদিনী কলেজ মোড়ে অবস্থিত ‘টাঙ্গাইল ক্লিনিক অ্যান্ড হসপিটাল’ থেকে অধ্যাপক ডা. এফএম শাহ সেকেন্দার নামে এক ভূয়া চিকিৎসককে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ(ডিবি)।

শনিবার স্বেচ্ছায় দোষ স্বীকার করায় ভ্রাম্যমান আদালত তাকে ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দেন।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) দক্ষিণের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল কুমার দত্ত পিপিএম জানান, ডিবি’র এসআই মো. ওবায়দুর রহমান, এএসআই মো. জাহাঙ্গীর আলম, কনস্টেবল বাসুদেব, মফিজুর রহমান ও সেলিমের সমন্বয়ে গঠিত একটি বিশেষ অভিযান চালিয়ে ‘টাঙ্গাইল ক্লিনিক অ্যান্ড হসপিটাল’ থেকে ভূয়া চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. এফএম শাহ সেকেন্দারকে গ্রেপ্তার করে। তার প্রকৃত নাম মো. শাহ সেকেন্দার। তিনি ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ক্যান্টনমেন্ট এলাকার মাটিকাটা গ্রামের (বাসা নং-১৪৩/৪) ওমর আলী ফকিরের ছেলে।

তিনি আরো জানান, ভূয়া চিকিৎসক স্বেচ্ছায় দোষ স্বীকার করায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার মো. রোকনুজ জামানের নেতৃত্বাধীন ভ্রাম্যমান আদালত মা. শাহ সেকেন্দারকে মেডিকেল এবং ডেন্টাল কাউন্সিল আইন ২০১০ এর ২৯(১) এবং ২৯(২) ধারার অপরাধে ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।

Leave a Reply

Related Articles