টাঙ্গাইলে ঝড়ে একজন নিহত: গোপালপুরে তিনটি গ্রামের কয়েকশ ঘরবাড়ি লন্ডভন্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক : টাঙ্গাইলের মধুপুরে কালবৈশাখী ঝড়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে। গোপালপুরে লন্ডভন্ড হয়ে গেছে তিনটি গ্রাম। টাঙ্গাইল শহরের বিভিন্ন এলাকায় গাছপালা উপড়ে গেছে। গাছ চাপায় আহত একজনকে আশংকাজনক অবস্থায় ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় মধুপুর পৌর এলাকার মালাউরি গ্রামের রূপচান মিয়ার বসত ঘরের দেয়াল ঝড়ে ধ্বসে পড়ে। এতে রূপচান মিয়ার স্ত্রী দিলরুবা (৩৬) এবং দুই ছেলে রাকিব (১১) ও সাকিব (৯) আহত হয়। তাদের উদ্ধার করে মধুপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক গুরুতর আহত রাকিব ও সাকিবকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। সেখানে নেওয়ার পর রাত সাড়ে ১০ টার দিকে রাকিবের মৃত্যু হয়। দিলরুবা কে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

একই সময় কালবৈশাখী ঝড়ে লন্ডভন্ড হয়েছে টাঙ্গাইলের গোপালপুর উপজেলার হেমনগর ইউনিয়নের তিন গ্রাম। এসময় অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে পাঁচজনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
এদিকে ঝড়ে পল্লী বিদ্যুতের খুঁটি ভেঙ্গে পড়ায় ইউনিয়নের পাঁচটি গ্রাম বিদ্যুত বিচ্ছিন্ন রয়েছে।

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, ঝড়ে গাছ ভেঙ্গে ঘরে ও রাস্তার উপর পড়ে রয়েছে। কয়েকশ বাড়িঘর লন্ডভন্ড হয়েছে। ইউনিয়নের কুইরাবাড়ি, বালবাড়ি ও ভোলারপাড়ার কয়েকশত বাড়িঘর ঝড়ে লন্ডভন্ড হয়ে গেছে। বালবাড়ি গ্রামের উপার আলী জানান, সন্ধ্যায় হঠাৎ করে কালবৈশাখী ঝড় শুরু হয়। কিছু বুঝে উঠার আগেই তার তিনটি টিনের ঘর ভেঙ্গে যায়।

একই এলাকার রেজাউল করিম জানান, ঝড়ে তার ঘর লন্ডভন্ড হয়ে যায়। এসময় ঘরে থাকা তার মা রাজিয়া বেগম আহত হন। তাকে গোপালপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
ভোলারপাড়া গ্রামের জয়নাল মিয়া জানান, ঝড়ের সময় গাছের নিচে চাপা পড়ে তার একটি গাভি মারা যায়।

গোপালপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিকাশ বিশ^াস জানান, ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থদের খোঁজখবর নিয়ে ক্ষতিপূরণ দেয়া হবে।

এদিকে শুক্রবার সন্ধ্যার ঝড়ে টাঙ্গাইল শহরের স্টেডিয়াম এলাকায় একটি কাঁঠবাদাম গাছ উপড়ে পড়ে। গাছের নিচে চাপা পড়ে শান্ত চৌহান (১১) নামক এক শিশু আহত হয়েছে। তার মাথা থেতলে গেছে। আশংকাজনক অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। সেখানে তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয়েছে।

Related Articles