কালিহাতীতে অবৈধ বালু উত্তোলণের প্রতিবাদে ঝাড়ু মিছিল ও মহাসড়ক অবরোধ

কালিহাতীতে অবৈধ বালু উত্তোলণের প্রতিবাদে ঝাড়ু মিছিল ও মহাসড়ক অবরোধ

তারেক আহমেদ : টাঙ্গাইলের যমুনা ও ধলেশ্বরী নদী থেকে প্রভাবশালী মহলের অবৈধ বালু উত্তোলণের প্রতিবাদে ৪টি গ্রামের নারী পুরুষ মিলিত হয়ে ঝাড়– মিছিল নিয়ে ঢাকা-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়ক অবরোধ করে স্থানীয়রা। সোমবার দুপুরে ঢাকা-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের কালিহাতী উপজেলার গোহালিয়াবাড়ি ইউনিয়নের জোকারচর এলাকায় ঘন্টাব্যাপী অবরোধ কর্মসূচি পালন করে স্থানীয়রা। অবরোধের কারনে মহাসড়কে সকল যানচলাচল বন্ধ হয়ে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ) শাহরিয়ার রহমান ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিলে অবরোধ তুলে নেওয়া হয়।
স্থানীয়রা জানান, রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় দীর্ঘদিন ধরে একটি প্রভাবশালী মহল অবৈধভাবে যমুনা ও ধলেশ্বরী নদী থেকে বালু উত্তোলণ করে আসছে। এতে প্রতিবছর ওই এলাকার শতশত বসতভিটা, রাস্তাঘাট ও ফসলী জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে। চলতি বছরেও ভাঙনের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। জোকারচর এলাকায় আবার বালু উত্তলণের জন্য রোববার নিউ ধলেশ্বরী নদীতে ড্রেজার বসিয়ে বালু উত্তোলণের চেষ্টা করলে বাধা দেয় এলাকাবাসী। কিন্তু পুলিশ ড্রেজার মালিকদের গ্রেফতার না করে বালু উত্তোলনের প্রতিবাদকারী জোকারচর গ্রামের চান্দু সরকারের ছেলে মাসুদ রানাকে আটক করে কালিহাতী থানা পুলিশ। সোমবার সকালে মাসুদকে আটকের খবর ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ হয় স্থানীয়রা। পরে মাসুদ রানাকে মুক্তি ও বালু উত্তোলণ বন্ধের দাবিতে জোকারচর, গবিন্দপুর, বেনুকুর্শা গ্রামের শত শত নারী পুরুষ ঝাড়– মিছিল নিয়ে ঢাকা-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের কালিহাতীর জোকারচর এলাকায় মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে। সড়ক অবরোধের খবর পেয়ে কালিহাতী উপজেলা সহকারি কমিশনার ভূমি শাহরিয়ার রহমান ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিলে বিক্ষোভকারীরা সড়ক অবরোধ তুলে নেয়।
গোহালিয়াবাড়ি ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের সভাপতি খায়রুল আলম, গোহালিয়া ইউনিয়নের মহিলা মেম্বার ডলি বেগম, জোকারচর গ্রামের মজিবর রহমান,ফরহাত আলী বলেন, দীর্ঘদিন ধরে প্রভাবশালী মহল যমুনা ও ধলেশ্বরী নদীতে বালু উত্তোলন করায় ফসলি জমি ও বাড়িঘর নদী গর্ভে বিলীন হয়ে শতশত মানুষ এখন গ্রাম ছাড়া হয়ে পড়েছে। বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করলে রাস্তাঘাটে ভয়ভীতি ও মামলা দিয়ে পুলিশ দিয়ে হয়রানি করা হুমকি দেয়।
গতবছর জোকারচর এলাকার নিউ ধলেশ্বরী নদীতে বালু উত্তোলন করায় জোকারচর গ্রামের আংশিক এলাকা ও রাস্তা নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। আবার ওই স্থানে ড্রেজার মেশিন বসায় বালু উত্তোলনকারীরা। এবিষয়ে প্রতিবাদ করলে মাছুদরানাকে পুলিশ দিয়ে আকট করায় প্রভাবশালী মহল।
মাছুদ রানাকে আটকের বিষয়ে কালিহাতী থানা ওসি তদন্ত নজরুল ইসলাম মুঠো ফোনে জানতে চাইলে বক্তব্য দিতে গড়িমসি করে বলেন, তাদের মারপিটের ঘটনায় মামলা দায়ের করায় পুলিশ মাছুদ রানাকে আটক করেছে।
এবিষয়ে সহকারি কমিশনার ভূমি শাহরিয়ার রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার বলেন, গ্রামবাসীর দাবীর বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিলে তারা অবরোধ তুলে নেয়।

Related Articles