জেএসসিতে পাসের হার ৮৭.৯০, পিইসিতে ৯৫.৫০

 

নিজস্ব প্রতিবেদক:

অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের সমাপনী পরীক্ষা জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে। এছাড়া প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষারও ফল প্রকাশ করা হয়েছে। এবার জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় পাসের হার ৮৭ দশমিক ৯০, যা গত বছর ছিল ৮৫ দশমিক ৮৩ শতাংশ।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি সংবাদ সম্মেলন করে জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করেন।

প্রকাশিত ফলে গতবারের চেয়ে এবার জেএসসি ও জেডিসিতে পাসের হার ২ দশমিক ০৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। এবার জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭৮ হাজার ৪২৯ জন, যা গত বছর ছিল ৬৮ হাজার ৯৫ জন। গতবারের চেয়ে এবার জিপিএ-৫ বেড়েছে ১০ হাজার ৩৩৪ জন।

এর আগে সকাল ১০টার দিকে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার ফলাফলের অনুলিপি তুলে দেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন। এরপর বিভিন্ন বোর্ডের চেয়ারম্যানরা নিজ নিজ বোর্ডের ফলাফল প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দেন।

গত ২ নভেম্বর শুরু হয়েছিল জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা। দুই পরীক্ষায় মোট পরীক্ষার্থী ছিল প্রায় সাড়ে ২৪ লাখ।

আর প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা শুরু হয়েছিল ১৭ নভেম্বর। দুই পরীক্ষায় মোট পরীক্ষার্থী ছিল প্রায় ২৯ লাখ।

 

এদিকে প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষার ফল প্রকাশ হয়েছে। এবার প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীর পাসের হার ৯৫ দশমিক ৫০ শতাংশ। আর সমমানের ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় পাসের হার ৯৫ দশমিক ৯৬ শতাংশ।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে ফলাফলের এ তথ্য জানান প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন। এ সময় মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আকরাম-আল-হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

জাকির হোসেন বলেন, প্রাথমিকে জিপিএ-৫ পেয়েছে তিন লাখ ২৬ হাজার ৮৮ জন। তাদের মধ্যে ছাত্র এক লাখ ৪১ হাজার ৪৫১ ও ছাত্রী এক লাখ ৮৪ হাজার ৬৩৭ জন।

ইবতেদায়িতে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫ হাজার ৬৮৫ ছাত্র ও ১ হাজার ১৯২ জন ছাত্রীসহ মোট ১১ হাজার ৮৭৭ জন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, এবার ইবতেদায়ি পরীক্ষায় ছাত্রদের সংখ্যা বেশি হলেও গড় পাসের দিক থেকে মেয়েরা এগিয়ে রয়েছে। ছাত্রদের পাসের হার ৯৫ দশমিক ৫০ শতাংশ এবং ছাত্রীদের পাসের হার ৯৬ দশমিক ৪৪ শতাংশ। সর্বোচ্চ পাসের হার বিবেচনায় ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় দেশের আট বিভাগের মধ্যে রাজশাহী বিভাগ শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে। এ বিভাগে পাসের হার ৯৭ দশমিক ৮১ শতাংশ। নওগাঁ জেলায় পাসের হার শতভাগ।

এবার বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ২৪০ জন এবং ডিআরভুক্ত হয়ে ২১৪ জন পরীক্ষায় অংশ নেয় বলে জানান প্রতিমন্ত্রী। তাদের মধ্যে ১৯৭ জন পাস করেছে, যাদের ১১৪ জন ছাত্র এবং ৮৩ জন ছাত্রী। এ স্তরে পাসের হার ৯২ দশমিক ০৬ শতাংশ।

পরীক্ষায় অংশ নেওয়া মোট ২৪ লাখ ৫৪ হাজার ১৫১ জনের মধ্যে পাস করেছে ২৩ লাখ ৪৩ হাজার ৭৪৩ জন। পাসের হার ৯৫ দশমিক ৫০ শতাংশ। উত্তীর্ণদের মধ্যে ১০ লাখ ৭২ হাজার ১৫৪ জন ছাত্র ও ১২ লাখ ৭১ ৫৮৯ জন ছাত্রী।

অন্যদিকে ইবতেদায়িতে এবার তিন লাখ চার হাজার ১৭৮ জন অংশগ্রহণ করে। তাদের মধ্যে পাস করেছে এক লাখ ৫৭ হাজার ৯৩৬ জন। পাসের হার ৯৫ দশমিক ৯৬ শতাংশ। ছাত্র সংখ্যা এক লাখ ৫০ হাজার ৮৩৫ জন ও ছাত্রী এক লাখ ৪১ হাজার ৪০ জন।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব আকরাম আল হোসেন, অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এ এফ এম মনজুর কাদির, মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তারা।

(এম কন্ঠ/আর.কে/৩১ ডিসেম্বর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related Articles