বঙ্গবন্ধু সেতু সড়কের এলেঙ্গাতে থামছে না যানজট

বিশেষ প্রতিনিধি:

ঢাকা-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের কালিহাতীর এলেঙ্গাতে সড়ক সম্প্রসারণের কাজ শুরু হওয়ায় এক মাস ধরে নিয়মিত জনদুর্ভোগ বেড়েছে। টাঙ্গাইল শহর পার হওয়ার পরই প্রতিদিন যানজটের মুখে পড়তে হচ্ছে। ২০ মিনিটের পথ পার হতে সময় লাগছে দুই-তিন ঘণ্টা। ফলে সড়কটি এখন ‘যানজটের মহাসড়কে’ পরিণত হয়েছে।

এদিকে গত এক সপ্তাহ ধরে কুয়াশার কারণে সেতুতে যান চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। ফলে বেড়েছে যানজটের তীব্রতা।

সড়ক ও জনপথ সূত্র জানায়, জয়দেবপুর থেকে এলেঙ্গা পর্যন্ত চার লেন সড়ক কালিহাতী উপজেলার এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় শেষ হয়েছে। চার লেনের পর থেকে বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব প্রান্তের ৩০০ মিটার সম্প্রসারণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। পাঁচ কোটি ১৬ লাখ টাকা ব্যয়ে এই সড়ক সম্প্রসারণের কাজ এক মাস আগে শুরু হয়েছে। এরপর থেকে নিয়মিত যানজট হচ্ছে এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ড এলাকায়।

ট্রাফিক পুলিশ বিভাগ জানায়, এলেঙ্গাতে ওই ৩০০ মিটার এলাকায় এক লেনে যানবাহন পারাপার করতে হচ্ছে। ফলে এলেঙ্গা থেকে বঙ্গবন্ধু সেতুর দিকে এবং ঢাকার দিকে উভয় পাশে অন্তত ১০ কিলোমিটার যানজট লেগে থাকছে।

এলেঙ্গার এই যানজটের সঙ্গে নতুন করে যোগ হয়েছে ঘন কুয়াশা। কুয়াশার কারণে রাতে যানবাহন ধীরগতিতে সেতু এলাকায় চলতে হচ্ছে। কুয়াশার কারণে কোনো কোনো সময় সেতুতে টোল আদায় বন্ধ রাখা হচ্ছে। এতে দুই পাশে দীর্ঘ হয় যানবাহনের সারি। কখনো কখনো যানজট সেতু থেকে ৫-১০ কিলোমিটার ছাড়িয়ে যায়।

এলেঙ্গার যানজটের পর কিছুদূর এগিয়ে গেলে সেতুর যানজটে পড়তে হচ্ছে। অনেক সময় যানজট সেতু থেকে এলেঙ্গা হয়ে টাঙ্গাইল সদর উপজেলার রসুলপুর পর্যন্ত ২০ কিলোমিটার চলে আসে।

মঙ্গলবার সকালে টাঙ্গাইল শহর বাইপাস থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত সরেজমিনে দেখা যায়, কালিহাতী উপজেলার পৌলী থেকে এলেঙ্গা পর্যন্ত চার কিলোমিটার যানজট। এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ড পার হওয়ার পরও বঙ্গবন্ধু সেতুর সংযোগ সড়কের তিন কিলোমিটার জট লেগে আছে। একই অবস্থা দেখা যায় সেতু এলাকায় গিয়ে। সেতু থেকে পাঁচ কিলোমিটার যানবাহনের জট।

গাজীপুর থেকে বগুড়াগামী ট্রাকের চালক হযরত আলী জানান, টাঙ্গাইল শহর বাইপাস পার হয়ে কিছুদূর এগিয়েই যানজটে পড়েন তিনি। সেই জট ছাড়িয়ে এসে আবার পড়েছেন সেতুর কাছে জটে। স্বাভাবিক অবস্থায় যে পথ পাড়ি দিতে ২০-২৫ মিনিট লাগে, সে পথ পার হতে সময় লেগেছে দুই ঘণ্টার বেশি।

সেতুর গোলচত্বরের কাছে যানজটে আটকা পড়া বাসের অনেক যাত্রী নেমে দেখছিলেন জটের অবস্থা। রাজশাহীর জাহাঙ্গীর আলম জানান, এ সড়ক এখন যানজটের মহাসড়কে পরিণত হয়েছে। সেতু এলাকা এবং এলেঙ্গাতে যানজটে পড়ে দুই থেকে চার ঘণ্টা পর্যন্ত আটকে থাকতে হয়।

টাঙ্গাইলের ট্রাফিক পরিদর্শক (টিআই) এশরাজুল হক জানান, এলেঙ্গাতে সড়ক সম্প্রসারণ কাজ চলায় এবং কুয়াশার কারণে রাতে যানবাহন চলাচল অসুবিধা হচ্ছে। এরই জের এই যানজট। যানজট নিরসনে ট্রাফিক পুলিশ, হাইওয়ে পুলিশ এবং থানার পুলিশের ভ্রাম্যমাণ দল কাজ করছে বলে জানান তিনি।

জেলা পুলিশ বিভাগের উদ্যোগে যানজট নিরসনের বিষয়ে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত এক সভায় সড়ক বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, এলেঙ্গাতে কাজ শেষ হতে আগামী ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত সময় লাগবে। ওই এলাকায় মহাসড়কের দুই পাশে সম্প্রসারণের কাজ প্রায় শেষ। এখন মাঝখানের লেনের কাজ শুরু হবে।

টাঙ্গাইল সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আমিমুল এহসান জানান, এলেঙ্গাতে নির্মাণকাজ চলায় যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। এর নির্মাণকাজ শেষ হলে এলেঙ্গাতে আর যানজটে মানুষের দুর্ভোগ পোহাতে হবে না।

(এম কন্ঠ/ আর.কে/২৫ডিসেম্বর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related Articles