শঙ্কামুক্ত কাদের, বিশ্রামে থাকার পরামর্শ

নিজস্ব প্রতিবেদক

শ্বাসকষ্ট নিয়ে ঢাকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল। পর্যবেক্ষণের জন্য তাকে করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিএসএমএমইউ উপাচার্য কনক কান্তি বড়ুয়া।

শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে গণমাধ্যমকর্মীদের তিনি এই তথ্য দেন। কনক কান্তি বলেন, ওবায়দুল কাদেরের শ্বাসকষ্ট কমে গেছে এবং রক্তচাপ স্বাভাবিক রয়েছে। তবে তাকে আগামী ২৪ ঘণ্টা বিএসএমএমইউয়ের কার্ডিওলজি বিভাগের করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) রাখা হবে।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার (ওবায়দুল কাদের) অসুস্থ হওয়ার বিষয়টি জানেন। তিনি বিষয়টি দেখছেন। তাকে বিদেশ পাঠানোর দরকার হলে তিনিই পাঠাবেন।

এর আগে সকাল ১০টার দিকে ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে নির্ধারিত সম্পাদকমণ্ডলীর সভার যোগ দিতে যাওয়ার পরপরই অসুস্থ বোধ করেন কাদের। পরে পৌনে ১১টার দিকে তাকে বিএসএমএমইউতে আনা হয়।

এর আগে গত বছরের ২ মার্চও শ্বাসকষ্ট নিয়ে ঢাকার বিএসএমএমইউতে ভর্তি হয়েছিলেন ওবায়দুল কাদের। সেখানে এনজিওগ্রামে কাদেরের হৃদপিণ্ডের রক্তনালীতে তিনটি ব্লক ধরা পড়ে। এর মধ্যে একটি ব্লক স্টেন্টিংয়ের মাধ্যমে অপসারণ করেন চিকিৎসকরা।

অবস্থা কিছুটা স্থিতিশীল হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ৪ মার্চ এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে সিঙ্গাপুরে নেওয়া হয়। ভর্তি করা হয় মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে। সেখানে কার্ডিও থোরাসিক সার্জন ডা. শিভাথাসান কুমারস্বামীর নেতৃত্বে কাদেরের বাইপাস সার্জারি হয়।

এক মাস পর হাসপাতাল ছাড়লেও চিকিৎসকরা ‘চেকআপের জন্য’ আরও কিছু দিন তাকে সিঙ্গাপুরে থাকার পরামর্শ দেন। এরপর একটি বাসা ভাড়া করে সিঙ্গাপুরে অবস্থান করেন ওবায়দুল কাদের। পরে শারীরিক অবস্থার উন্নতি হলে গত বছরের ১৫ মে দেশে ফেরেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

(মজলুমের কণ্ঠ/৩১জানুয়ারি/আর.কে)

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related Articles