সৌদিতে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত আলামিনের পরিবারে শোকের ছায়া

নিজস্ব প্রতিবেদক :

সৌদি আরবের জেদ্দায় মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনায় ৩ বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে একজন টাঙ্গাইলের কালিহাতীর নাগবাড়ী ইউনিয়নের আওলাতৈল গ্রামের আলামিন (৩০)। তিনি ফরহাদ আলী ও ফিরোজা বেগমের একমাত্র ছেলে। আলামিনের বড় বোন রয়েছে। সৌদিতে একটি কোম্পানীতে সে গাড়ী চালকের কাজ করতো।

সড়ক দূর্ঘটনায় আলামিনের নিহত হওয়ার খবর বুধবার রাতে বাড়ীতে পৌঁছায়। খবর শোনার পর থেকেই এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। পরিবারের সদস্য ও প্রতিবেশীরা কোনভাবেই আলামিনের অকাল মৃত্যু মেনে নিতে পারছেন না। স্বজনদের আহাজারিতে ভারী হয়ে উঠেছে চারপাশ।

নাগবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আব্দুস সালাম মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, কৃষক পরিবারের সন্তান আলামিনরা দুই-ভাই বোন। পরিবারে দারিদ্রতা দূর করতে আলামিন ১১ বছর আগে সৌদি আরবে যান। আলামিন পাশের গ্রাম আওয়ালিয়াবাদে বিয়ে করেছে। তাদের কোন সন্তানাদি হয়নি।

নিহত আলামিনের স্ত্রী বিলকিস বেগম বলেন, প্রায় ৫ বছর আগে ছুটিতে আসার পর আলামিনের সাথে আমার বিয়ে হয়। এরপর সে কিছুদিন থেকে আবার সৌদি চলে যান। আলামিনই ছিলো পরিবারের একমাত্র ভরসা। বাবা মা অসুস্থ থাকায় আগামী ১২ ফেব্রুয়ারি তার দেশে ফেরার কথা ছিলো। আমাদের ৩ লাখ টাকা ঋণও রয়েছে। তাকে হারিয়ে আমরা খুবই অসহায়। লাশ দ্রুত দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য সরকারের কাছে অনুরোধ করছে বিলকিস ।

(মজলুমের কণ্ঠ/৩০জানুয়ারি/আর.কে)

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related Articles