ওরা শহীদ দিবস পালন করতে পারেনি

নিজস্ব প্রতিবেদক:

আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো ২১শে ফেব্রুয়ারি আমি কি ভুলিতে পারি।ভুলতে না পারা সেই অমর একুশে ফেব্রুয়ারি শুক্রবার মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস সারাদেশে যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হলেও টাঙ্গাইলের কালিহাতীর গোপাল দিঘি কেপি ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ে কোন প্রকার কর্মসূচি পালন করা হয়নি। অযত্ম অবহেলায় পড়ে আছে শহীদ মিনারটি। শুক্রবার সকালে ওই বিদ্যাললয়ে গিয়ে দেখা যায়,অফিস কক্ষ তালাবদ্ধ,উপস্থিতি নেই কোন শিক্ষক শির্ক্ষাথীর। শহীদ মিনারের বেদিতে করা হয়নি পুস্পস্তবক অর্পণ।দেখানো হয়নি ভাষা শহীদদের প্রতি সম্মান ও শ্রদ্ধা।

দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী আশরাফুলসহ ওই বিদ্যালয়ের একাধিক শিক্ষার্থী জানায়,শিক্ষকরা ২১শে ফেব্রুয়ারির বিষয়ে কিছু জানায় নাই তাই ফুল দিতে যাইনি।

পাইকড়া ইউপি আ’লীগ সভাপতি ও ওই বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক হায়দার আলী মোল্লা জানান, মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করার কথা ছিল।আমি সকালে গিয়ে দেখি কোন কর্মসুচির আয়োজন নাই।

গোপাল দিঘি কেপি ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক শাহ আলম এর মুঠো ফোনে বলেন,আমাদের বিদ্যালয়ের পরিচালনা পরিষদের নির্বাচণ ২২ ফেব্রুয়ারি। এনির্বাচন নিয়ে মারামারি ও মামলা হয়েছে। তাই অনুষ্ঠান পালন করতে পারি নাই।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার রোকেয়া খাতুন বলেন,আমি সকালে জানতে পারি গোপাল দিঘি কেপি ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের কর্মসুচি পালন করা হয় নাই।আমি দিবসটি পালন করার নির্দেশ দিয়েছি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মতর্তা শামিম আরা নিপা বলেন,আমি আপনার কাছে শুনলাম,শিক্ষা অফিসারের সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

(মজলুমের কণ্ঠ/২১ ফেব্রুয়ারি/আর.কে)

 সংবাদটি শেয়ার করুন

Related Articles