বাসাইলে করোনা সন্দেহে বেকায়দায় সিঙ্গাপুরফেরত প্রবাসী

নিজস্ব প্রতিবেদক;

টাঙ্গাইলের বাসাইলে সিঙ্গাপুরফেরত এক প্রবাসী করোনা ভাইরাস সন্দেহে বেকায়দায় পড়েয়েছে। সিঙ্গাপুর থেকে ফেরার সময় করোনা ভাইরাস পরীক্ষা করার পরও দেশে এসে স্থানীয়দের সন্দেহে তোপের মূখে পরেন ওই প্রবাসী। অবশেষে চিকিৎসকরা তাকে পরীক্ষা করার জন্য ঢাকায় নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন । সিঙ্গাপুর থেকে আসার পর এলাকাবাসীর চাপে তিনি রবিবার দুপুরে বাসাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যান। সেখানকার চিকিৎসকরা তাকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠান। টাঙ্গাইলের চিকিৎসকরা তার শরীরে করোনা ভাইরাসের নমুনা পাননি। এরপরও প্রবাসীর সন্দেহের কারণে পরীক্ষা করতে তাকে ঢাকায় যাওয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা।

টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মোজাম্মেল হোসেন বলেন, ‘তার শরীরে করোনা ভাইরাসের কোনও নমুনা পাওয়া যায়নি। তার শরীরে জ্বর বা ঠা-া লাগার লক্ষণ নেই। এরপরও যেহেতু তিনি বিদেশ থেকে এসেছেন এবং লোকজন তাকে সন্দেহ করছে, তাই তাকে ঢাকায় গিয়ে পরীক্ষা করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।’

সিঙ্গাপুরফেরত ওই প্রবাসী বলেন, ‘আমি গত ১৩ ফেব্রুয়ারি সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ছুটিতে আসি। বিমানবন্দরেও করোনা ভাইরাসের পরীক্ষা করা হয়েছে। সেখানে আমার করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের কোনও নমুনা পাওয়া যায়নি। কিন্তু বাড়ি আসার পর এলাকার লোকজন আমাকে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত বলে সন্দেহ করছে। আমার কাছেও কেউ আসছে না। আমি নিরুপায় হয়ে চিকিৎসকদের পরামর্শ নিতে এসেছি।’

ওই প্রবাসীর স্ত্রী বলেন, ‘আমার স্বামী প্রতি বছর একবার করে ছুটি নিয়ে দেশে আসেন। গত ৪ মাস আগেও তিনি দেশে এসেছিলেন। আবার গত ১৩ ফেব্রুয়ারি দেশে ফেরার কারণে মানুষ মনে করছে তিনি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। স্থানীয় কেউ শত্রুতা করে গুজব ছড়িয়েছে।’

(মজলুমের কণ্ঠ/১৬ ফেব্রুয়ারি/আর.কে)

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related Articles