ইমরান খান মুসলিম ম্যান অব দ্য ইয়ার-২০২০

ইমরান খান মুসলিম ম্যান অব দ্য ইয়ার-২০২০

অনলাইন ডেস্ক:

জর্দানের রয়েল ইসলামিক স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজ সেন্টার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে ২০২০ সালের মুসলিম ম্যান অব দ্য ইয়ার ঘোষণা করেছে। সেন্টারের জারি করা বিশ্বের সর্বাধিক প্রত্যয় সৃষ্টিকারী মুসলমানদের তালিকার শিরোপা জিতেছেন ইমরান খান। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম টুইটারে ১ কোটি ৫ লাখ ফলোয়ার পেয়ে বিশ্বের শীর্ষ ষষ্ঠ জনপ্রিয় নেতা হয়েছেন।

দ্য রয়েল ইসলামিক স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজ সেন্টার (আরআইএসএসসি) জর্দানে রয়্যাল আল আল-বাইত ইনস্টিটিউট ফর ইসলামিক থট-এর একটি স্বায়ত্তশাসিত গবেষণা সংস্থা। ইমরানের নাম আরআইএসএসসি প্রকাশিত বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী ৫০০ মুসলমানের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

উভয় খেতাব অর্জনকারীদের বাছাইকারী কায়রোয় আমেরিকান বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতার ইমেরিটাস অধ্যাপক এস আবদুল্লাহ শ্লাইফার বলেন, ‘দ্য মুসলিম ৫০০’ যদি ১৯৯২ সালে প্রিন্ট হত এবং আমি তখন প্রধান সম্পাদক থাকতাম তাহলে ১৯৯৯ সালে ক্রিকেট বিশ্বকাপ জয়ের সময় ক্রিকেটে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের কারণে ইমরান খানকে বছরের সেরা পুরুষ হিসাবে মনোনীত করতাম।

তবে ইমরানের কৃতিত্বের বিষয়টির বিশেষত্ব হল ২০১৮ সালের আগস্টে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেয়ার পর তিনি পুরোপুরি পরিষ্কার করে দিয়েছিলেন যে, তার শীর্ষ অগ্রাধিকারগুলোর একটি হ’ল ভারতের সাথে স্থায়ী শান্তির জন্য কাজ করা।

প্রফেসর এস আবদুল্লাহ শ্লিফার উল্লেখ করেছেন, ‘ইমরান সম্পর্ককে স্বাভাবিক করতে চেয়েছিলেন বাণিজ্য এবং ‘সর্বাধিক বাধা’ কাশ্মীর বিরোধকে মীমাংসার মাধ্যমে। প্রধানমন্ত্রীর নিজস্ব ভাষায় ‘আমাদের মধ্যে বিদ্যমান সম্পর্ককে স্বাভাবিকীকরণ’-এর মাধ্যমে।

চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে তার চিত্তাকর্ষক ভাষণের পর তার সমর্থকদের মাঝে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরানের জনপ্রিয়তা বহুগুণে বেড়েছে। আমেরিকা সফরকালে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে তার কঠোর বক্তৃতার কারণে সম্ভবত ইমরান খান গত মাসে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে অংশ নেয়া অন্যতম সর্বাধিক সন্ধানী বিশ্বনেতা হয়েছিলেন।

অধ্যাপক শ্লেইফার বলেন, ক্রিকেটে ইমরানের ভ‚মিকা তাকেই উপাধিতে ভ‚ষিত করার একমাত্র মানদÐ ছিল না। তিনি বলেন, ক্যান্সার রোগীদের যতœ ও গবেষণা উভয়ের জন্য নিবেদিত একটি হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করার জন্য সফল তহবিল সংগ্রহ অভিযান চালানোয় ইমরানের প্রতিও তিনি মুগ্ধ হয়েছিলেন। তিনি বলেন, প্রতিবেশী ভারতের সাথেও শান্তির জন্য ইমরানের ইচ্ছা ছিল যা তাকে এই খেতাব অর্জনে সহায়তা করেছিল।

আরআইএসএসসি ২০২০ সালের মুসলিম মহিলা হিসাবে রাশিদা তালিব নামে একজন আমেরিকান কংগ্রেস ওম্যানের নাম ঘোষণা করেছে। রাশিদা তালিব (ডেমোক্র্যাট, মিশিগান) এই বছরের ‘মুসলিম ৫০০’ বর্ষসেরা নারী নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি প্রথম ফিলিস্তিনি-আমেরিকান মহিলা এবং ইলহান ওমর (ডেমোক্র্যাট, মিনেসোটা)-এর সাথে আমেরিকান কংগ্রেসে প্রতিনিধি পরিষদের সদস্য নির্বাচিত যৌথ প্রথম মুসলিম মহিলা।

মজলুমের কণ্ঠ /১৯এপ্রিল /আর.কে)

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related Articles