টাঙ্গাইলে পিআইওকে মারধর করলেন ভাইস চেয়ারম্যান

টাঙ্গাইলে পিআইওকে মারধর করলেন ভাইস চেয়ারম্যান

নিজস্ব প্রতিবেদক:  প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাকে অফিস কক্ষে ঢুকে মারধরের অভিযোগে টাঙ্গাইল সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও শহর আওয়ামী লীগ নেতা নাজমুল হুদা নবীনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

শুক্রবার দুপুরে সদর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) একেএম মমিনুল হক বাদি হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। মামলায় তিনি অভিযোগ করেন বৃহস্পতিবার (২১ মে) বিকেল ৫টার দিকে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে তার অফিসকক্ষে অবস্থানকালে ভাইস চেয়ারম্যান নাজমুল হুদা ও তপু নামক তার অপর এক সহযোগিসহ আরও ৪/৫ জন ওই কক্ষে প্রবেশ করে। তারা সরকারি কাজে বাধাদান করে অবৈধভাবে ত্রাণের কিছু স্লিপ তাকে (পিআইও) দেন। তখন পিআইও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অনুমতি ছাড়া অবৈধভাবে ত্রাণ দিতে অস্বীকার করেন। এতে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে অফিসের দরজা বন্ধ করে দিয়ে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ শুরু করেন। এক পর্যায়ে তারা পিআইওকে শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাথারী কিল ঘুষি দেন। এতে নিলা ফুলা জখম হয়। তার চিৎকারে আশে পাশের লোকজন এগিয়ে এলে তারা ভয়ভীত দেখিয়ে ও হুমকি দিয়ে চলে যান।

পরে পিআইও মমিনুল হক টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা গ্রহণ করেন। তিনি মামলায় উল্লেখ করেন উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে পরামর্শ করে থানায় মামলা করতে বিলম্ব হলো।

তবে স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে, এ ঘটনার পর স্থানীয় প্রভাবশালী রাজনীতিক ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টায় নামেন। এ জন্যই মামলা দায়েরে বিলম্ব হয়।

নাজমুল হুদা নবীন টাঙ্গাইল শহর আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক। এর আগে তিনি জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন।
পিআইওকে মারধর করা প্রসঙ্গে নাজমুল হুদা  জানান, ত্রাণের বিষয় নিয়ে তার সাথে কিছু কথা কাটাকাটি হয়েছে। তবে মারধরের কোন ঘটনা ঘটেনি।

টাঙ্গাইল সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর মোশারফ হোসেন নাজমুল হুদার বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 

মজলুমের কণ্ঠ / ২৩ মে /আর.কে)

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related Articles