কালিহাতীত পরকিয়ার জেরে হত্যার ঘটনায় অভিযুক্তকে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবদক:
টাঙ্গাইলর কালিহাতী উপজলার এলঙ্গা পৌরসভার বাশী গ্রামে পরকিয়ায় বাধা দেয়ার কারনে প্রেমিককে নিয়ে স্বামীকে হত্যা করে স্ত্রী রজিয়া বেগম। মঙ্গলবার নিহতর নিজ বাড়ির সেফটি ট্যাংক থেকে উদ্ধার করা হয় চান মিয়ার লাশ। এ ঘটনায় পুলিশ নিহতর স্ত্রী রেজিয়া ও স্ত্রীর প্রেমিক একই এলাকার আব্দুল হালিম এবং সহযোগী রিপনক গ্রপ্তার করে।

মামলার বাদি নিহতের ভাই ফুলচানের স্ত্রী বলন, পরকিয়ার জেরে আমার ভাসুর চান মিয়াকে তার স্ত্রী সহযোগিতারা হত্যা করে বাড়ির পাশে সেপটিক ট্যাংকে ফেলে রাখে। এই ঘটনায় অভিযুক্ত রেজিয়া হত্যার সাথে পুলিশকে অভিযুক্ত রিপনের নাম জানালে পুলিশ রিপনকেগ্রেপ্তার করে। পর আব্দুল হালিম ও রেজিয়াকে আদালত পাঠালেও রিপনকে থানায় জিজ্ঞাসাবাদর নাম করে ছেড়ে দেওয়ার অভিযাগ উঠছে বলে স্থানীয়রা জানান।

অভিযুক্ত রিপন এলেঙ্গা পৌরসভা বাঁশি গ্রামের নুরুল মাস্টারের ছেলে

এ বিষয় কালিহাতী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রাহেদুল ইসলাম বলন, রিপন আটকের বিষয় আমার জানা নেই। আমি এ বিষয় কিছুই জানিনা।

কালিহাতী থানার ওসি সওগাতুল আলম জানান, হত্যার সাথ সংশ্লিষ্টতা না পাওয়ায় একজন নির্দোষ ব্যক্তিকে হয়রানি না করাই ভাল। এ ঘটনার সাথ তার জড়িত না থাকায় যে কোন সময় তাকে ছেড়ে দেওয়া হবে।

Related Articles