সখীপুরে সিঁধ কেটে চুরি হওয়া শিশু উদ্ধার, গ্রেফতার ৪

সখীপুর প্রতিনিধি:

টাঙ্গাইলের সখীপুরে সিঁধ কেটে ঘরে প্রবেশ করে মাকে বেঁধে রেখে শিশু চুরির ঘটনায় ওই শিশু জুনায়েদকে উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার ভোরে দেলদুয়ার উপজেলার জাঙ্গালিয়া গ্রাম থেকে পুলিশ শিশুকে উদ্ধার করে। শিশুটিকে উদ্ধার করে মা কল্পনা বেগমের নিকট হস্থান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত তিন জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, সখীপুর উপজেলার শোলা প্রতিমা গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে শফিকুল ইসলাম (৩৫), বাসাইল উপজেলার হাবলা গ্রামের পৈলান খানের ছেলে পরাণ খান (জামাল) (৪২), তার স্ত্রী শিউলী আক্তার (৩২) ও দেলদুয়ার উপজেলার জাঙ্গালীয়া গ্রামের আকরাম খানের স্ত্রী (পরাণের বোন) রওশন আরা বেগম (৪০)।

টাঙ্গাইল পিবিআইয়ের পুলিশ সুপার সিরাজ আমিন জানান, সখীপুর থানা পুলিশ ও পিবিআই টাঙ্গাইলের যৌথ উদ্যোগে  একটি দল সোমবার (৫ এপ্রিল) সারারাত জেলার বিভিন্ন উপজেলায় অভিযান চালায়। এ সময় তথ্য প্রযুক্তির সহযোগীতায় মঙ্গলবার ভোরে দেলদুয়ার উপজেলার জাঙ্গালীয়া গ্রাম থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। ঘটনার সাথে জড়িত দুই নারীসহ ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মনিরুজ্জামান বলেন, শিশু চুরি পরপরই পিবিআই ও থানা পুলিশ যৌথভাকে তদন্ত শুরু করে। এক পর্যায়ে আসামীদের গ্রেপ্তারের পর শিশুটিকে উদ্ধার করে মায়ের নিকট হস্থান্তর করা হয়েছে। এ মামলায় বাকী আসামীদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও তিনি জানান।

প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার ভোরে টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার শোলা প্রতিমা এলাকার ট্রাক চালক আছর উদ্দিনের ঘরে সিধ কেটে তার ২মাসের শিশু বাচ্চা চুরি করে দূর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় গত শুক্রবার (২ এপ্রিল) শিশুটির বাবা আছর উদ্দিন বাদি হয়ে সখীপুর থানায় মামলা দায়ের করেন।

(মজলুমের কণ্ঠ / ৬ এপ্রিল / আর.কে)

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related Articles