প্রধানমন্ত্রীকে কটুক্তি করে পদ হারাচ্ছেন টাঙ্গাইল পৌর-প্যানেল মেয়র

নিজস্ব প্রতিবেদক:

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্পর্কে কটুক্তি করার অভিযোগে টাঙ্গাইল পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ হাফিজুর রহমান স্বপনের ওই দায়িত্ব স্থগিত করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে পৌরসভার মেয়র এসএম সিরাজুল হক স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে এই সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়। সেই সাথে প্যানেল মেয়র-২ তানভীর হাসান ফেরদৌস প্যানেল মেয়র-১ এর দায়িত্ব পালন করবেন বলেও অফিস আদেশে উল্লেখ করা হয়েছে।

হাফিজুর রহমান স্বপন পৌরসভার ১৬ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর। এই কটুক্তি করার অভিযোগ গত ১৩ জুন তাকে টাঙ্গাইল শহর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়।

স্থানীয় সূত্র জানায়, গত ৫ জুন প্যানেল মেয়র হাফিজুর রহমান স্বপন শহরের আকুর টাকুর পাড়ায় একটি জমি পরিমাপকে কেন্দ্র করে ওই জমির মালিকের জামাতার সঙ্গে মুঠোফোনে কথা বলেন। কথা বলার এক পর্যায়ে তিনি তাকে বলেন, ‘আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেও মানি না’ তাছাড়া তিনি নানা অশ্লীল বক্তব্য দেন। তার এই বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এ নিয়ে ক্ষমতাশীল দল ও পৌরসভার কাউন্সিলরদের অনেকের মাঝে প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়।

গত ৯ জুন প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে কটুক্তির কারণে হাফিজুর রহমান স্বপনের বিরুদ্ধে ১৭ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আতিকুর রহমান মোর্শেদ বাদি হয়ে টাঙ্গাইল সদর থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন। এছাড়াও মুঠোফোনে হুমকি দেওয়ার ঘটনায় আকুর টাকুর পাড়ার প্রয়াত আশরাফ চৌধুরীর জামাতা মফিজুর রহমান টাঙ্গাইল সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, হাফিজুর রহমান স্বপন প্রথমে ছাত্রদল ও পরে বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। ২০১৪ সালের জুন মাসে তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে আওয়ামী লীগে যোগদান করেন। যোগদানের পরেই তিনি যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক পদ লাভ করেন। পরে ২০১৬ সালে শহর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতির পদ পান। তিনি ১৯ নং ওয়ার্ডের পরপর চারবার কাউন্সিলর নির্বাচিত হন। সর্বশেষ গত ৩০ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত পৌর নির্বাচনে কাউন্সিলর নির্বাচিত হওয়ার পর প্যানেল মেয়র-১ দায়িত্ব পান।

(মজলুমের কণ্ঠ / ২১ জুন / আর.কে)

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related Articles