যেখানে ১২ বছর পেরোলেই মেয়েরা হয়ে যায় ছেলে!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

পৃথিবী এমন আজব আজব ঘটনা ঘটে যার কোনও ব্যাখ্যা নেই। তেমনই এক ঘটনা ঘটছে লাতিন আমেরিকার দ্বীপ রাষ্ট্র ডমিনিকান রিপাবলিকে। দেশটির দক্ষিণের রয়েছে এক আজব গ্রাম সালিনাস। ওই গ্রামে কারও বয়স ১২ বছর না হলে বোঝা মুশকিল, সে আদৌ মেয়ে না ছেলে! খবর নিউজ এইটিনের।

ওই গ্রামের বাসিন্দা জনি শারীরিকভাবে ছেলে। কিন্তু কোনও এক কারণে তার পুরুষাঙ্গ তৈরি হয়নি। তবে ১২ বছরে পা দেয়ার পর তার পুরুষাঙ্গ গঠিত হয়। জনির মতো গ্রামের আরও অনেক ছোট ছোট শিশুর একই অবস্থা। ১২ বছরের আগে যারা মেয়ে ছিল, ১২-তে পা দেয়া মাত্রই তারা ছেলেতে পরিণত হয়েছে।

স্থানীয়রা এই রোগের নাম দিয়েছে ‘১২ বছরে পুরুষাঙ্গ রোগ’ বা গেবেদোসিস। জনিকে ১২ বছরের আগে সবাই মেয়ে বলেই জানতো। কিন্তু পুরুষাঙ্গ তৈরি হওয়ার পর তাকে এখন সবাই ছেলে হিসেবেই মেনে নিয়েছে।

গ্রামের বাসিন্দা এমনই ছয়জন মেয়ে ১২ বছর বয়সের পরই ছেলেতে পরিণত হয়েছে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, গ্রামের সবাই ওই ছয়জনকে মেয়ে বলেই চিনতো। তারা মেয়েদের পোশাক পরেই গ্রামে ঘুরতো। কিন্তু ১২ বছরে পা দিতেই তাদের পুরুষাঙ্গ গঠিত হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়ে। এখন ওই ছয়জনই ছেলেদের পোশাক পরে ঘুরে বেড়ায়।

বিশেষজ্ঞদের ধারণা, এক ধরনের বিশেষ শারীরিক ত্রুটির কারণেই গ্রামের মেয়েদের সঙ্গে এমনটা ঘটে থাকে। গর্ভাবস্থায় থাকাকালীনই শিশুদের উপর এই প্রভাব পড়তে শুরু করে। এই সমস্যার সৃষ্টি হয় গর্ভাবস্থায় একটি বিশেষ এনজাইমের অভাবে।

 

(মজলুমের কণ্ঠ / ৮ আগস্ট/ আর.কে)

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related Articles