ভূঞাপুরে পেট্রোল দিয়ে পুড়িয়ে হত্যা চেষ্টা, আসামীক ছাড়িয়ে নিয়েছে ইউপি মেম্বার!

ভূঞাপুর প্রতিনিধি : টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার ফলদা মদনবাড়ি মোড় এলাকায় আরশেদ আলীর বসতবাড়িতে শনিবার গভীর রাতে পেট্রোল ঠেলে আগুন জ্বালিয়ে হত্যা চেষ্টার সময় পেট্রোলসহ একজনকে হাতেনাতে আটক করা হয়।

আজ রবিবার সকাল ৭টায় আটক আনোয়ার হোসেনকে ছাড়িয়ে নিয়েছেন ইউপি সদস্য আব্দুর রাজ্জাকসহ স্থানীয় প্রভাবশালীরা।

পুলিশ বলছে, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে কোন আলামত পাওয়া যায়নি।

জানা গেছে, উপজেলার ফলদা ইউনিয়নে বিভিন্ন গ্রামে প্রতিনিয়ত বসত বাড়ি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে গভীর রাতে আগুন লাগার অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। ক্ষতিগ্রস্থরা আগুন লাগার বিষয়ে ভূঞাপুর থানায় সাধারন ডায়রী করেছেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত আগুন লাগার সাথে জড়িত কেউকে সনাক্ত যায়নি।

শনিবার গভীর রাতে উপজেলার ফলদা মদন মোড় এলাকায় একটি বাড়িতে পেট্রোল ঠেলে আগুন দেয়ার চেষ্টার সময় হাতেনাতে আনোয়ার হোসেন নামে একজনকে আটক করে স্থানীয়রা। পরে আটক হওয়া ওই ব্যক্তিকে ফলদা ইউপি সদস্য আব্দুর রাজ্জাক, সাবেক ইউপি সদস্য শফি, জাহেদ আলী, ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সম্পাদকসহ স্থানীয় প্রভাবশালীরা ছাড়িয়ে নেন।

অন্যদিকে ফলদা এলাকায় বিভিন্ন বাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। সম্প্রতি ফলদা গ্রামের স্বরণ দত্তের বাড়ি, ভজন ঘোষের বাড়ি, পদন শীলের বাড়ি, মাসুদ রানার মনোহারী দোকানে, আব্দিুল আজিজ ঠান্ডুর বাড়িতে, আবু বকর সিদ্দিকীর স’মিলে, কিতাব আলীর বাড়িসহ আরো অনেকের বাড়িতে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে।

ফলদা মদন মোড় গ্রামের আরশেদ আলীর বাড়ির ভাড়াটিয়া আব্দুর ছবুর জানান, শনিবার গভীর রাতে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিয়ে ঘরের বাইরে আসলে রান্না ঘর থেকে পেট্রোলের গন্ধ পাওয়া যায়। এসময় এগিয়ে গেলে স্থানীয় আনোয়ার হোসেন নামের একজন দৌড়ে পালাতে থাকে। পরে তাকে পেট্রোলের কন্টিনারসহ হাতেনাতে আটক করা হয়। রবিবার সকালে ইউপি সদস্য রাজ্জাক ও স্থানীয় মাতব্বররা রাতে বিচারের কথা বলে ছাড়িয়ে নিয়ে যান।

ভূঞাপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুর রহিম জানান, বাড়ির ভাড়াটিয়ারা একজনকে আটক করলেও ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌছানোর আগেই গ্রাম্য সালিশ করে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। তবে ঘটনাস্থলে কোন আলামত পাওয়া যায়নি। এছাড়া কেউ থানায় অভিযোগ দায়ের করেনি।

Related Articles