ঘাটাইলে প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিধবা মহিলাকে গণধর্ষন, দু’জন গ্রেপ্তার

ঘাটাইল প্রতিনিধি : ঘাটাইলে মোবাইলের মাধ্যমে প্রেমের ফাঁদে ফেলে এক নারীকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গণধর্ষন করেছে তিন যুবক। গত মঙ্গলবার (১০ এপ্রিল) দিবাগত রাতে উপজেলার পাহাড়িয়া এলাকার চৌডাল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জড়িত দুই ধর্ষককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ধর্ষিতার বাড়ি ঘাটাইল উপজেলার চানতারা গ্রামে। এ ব্যাপারে ধর্ষিতা নিজে বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছেন।

মামলার অভিযোগ ও এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায়, উপজেলার জামুরিয়া ইউনিয়নের চানতারা গ্রামের মৃত নবাব আলীর মেয়ে নাইচ খানম (২৮)। প্রায় দুই বছর আগে স্বামী মারা যাবার পর সে পাঁচ বছর বয়সী এক পুত্র সন্তান নিয়ে ঘাটাইল পৌর শহরের খরাবর এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকত। কিছুদিন যাবৎ উপজেলার চৌডাল গ্রামের সোবহানের ছেলে বাবুল হোসেন (২৫) এর সাথে তার মোবাইলে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। প্রেম হলেও তাদের দুজনের দেখা সাক্ষাৎ হয়নি। মোবাইল ফোনে বাবুল গত মঙ্গলবার রাতে মেয়েটিকে ঘাটাইল কলেজ মোড়ে এলাকায় আসতে বলে। তার কথা মত মেয়েটি কলেজ মোড়ে আসলে বাবুল তাকে সিএজি যোগে উপজেলার চৌডাল এলাকার বনবিভাগের আকাশমনির বাগানে নিয়ে যায়। সেখানে কথিত প্রেমিক বাবুলের পরিকল্পনা মোতাবেক তিন বন্ধু পালক্রমে নারীটিকে ধর্ষন করে বনের মধ্যে ফেলে রেখে যায়। পরে মেয়েটি ঐ রাতেই থানায় গিয়ে ঘটনাটি পুলিশে অবগত করে এবং নিজে বাদী হয়ে মামলা করে। তার দেয়া তথ্য মতে মোবাইল ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে পুলিশ ঘটনার প্রধান হোতা বাবুল হোসেন (২৫) এবং তার বন্ধু চৌডাল গ্রামের ছাদের আলীর ছেলে ইদ্রিছ আলী (৪০) কে গ্রেপ্তার করে। অপর ধর্ষক পলাতক রয়েছে।

ঘাটাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মহি উদ্দিন পিপিএম জানান, ধর্ষিতাকে আজ বৃহস্পতিবার সকালে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য টাঙ্গাইল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত দুই ধর্ষককেও টাঙ্গাইল আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। মামলার তদন্ত ও অপর আসামীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Related Articles