টাঙ্গাইলে মারধর করার অভিযোগ হুগড়া ইউপি চেয়ারম্যান তোফার বিরুদ্ধে

নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ টাঙ্গাইলে সাইফুল ইসলাম (৫৫) নামে এক ব্যক্তিকে বেধরক মারধর অভিযোগ উঠেছে সদর উপজেলার হুগড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেন খান তোফার বিরুদ্ধে। বুধবার সকালে হুগড়া ইউনিয়নের বেগুনটাল বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

আহত সাইফুল ইসলাম চর হুগড়া গ্রামের কবাত মন্ডলের ছেলে। তিনি বর্তমানে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন। নিউজ লেখা পর্যন্ত মামলা পক্রিয়াধীন রয়েছে।

সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘বুধবার সকালে ধানের বীজ ও কাপড় কিনতে বেগুনটাল বাজারে যাই। কিছুক্ষণ পর হুগড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তার লোকজন নিয়ে এসে আমাকে ঘেরাও করেন। চেয়ারম্যান বলেন, সাইফুল তুই এলাকায় বড় নেতা হইছা এই বলে আমাকে চড় মারে। এরপর তার লোকজন আমাকে ধরে পাশ্ববর্তী মার্কেটের তিন তলায় ক্লাবে নিয়ে যায়। সেখানে তোফাজ্জল হোসেন খান তোফা চেয়ারম্যান, আশরাফের ছেলে নাইম, খাদেমের ছেলে রাকিবসহ ১২/১৩ জন লোক আমাকে ক্লাবের কক্ষে আটকিয়ে কিল, ঘুষি, লাথিসহ বেধরক মারধর করে। মারধরের এক পর্যায়ে গ্রাম পুলিশ দিয়ে আমাকে টাঙ্গাইল শহরের পাঠান। সেখান থেকে আমি লোকজনের সহযোগিতায় টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হয়েছি। মামলা পক্রিয়াধীন রয়েছে। আমি তোফা চেয়ারম্যানের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবি করছি।’

চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেন খান তোফা বলেন, ‘আমি তাকে মারধর করিনি। উল্টো সে আমাকে মারধর করতে আসলে জনতা তাকে মারধর করেছে।’

 

(মজলুমের কণ্ঠ / ৫ নভেম্বর/কে.এ)
সংবাদটি শেয়ার করুন

Related Articles