কলেজ ছাত্রীর সাহসিকতায় নারী উত্যক্তকারি চক্র চিহিৃত

নিজস্ব প্রতিবেদক : এক কলেজ ছাত্রীর সাহসিকতা এবং একটি ফেসবুক গ্রুপের তৎপরতায় টাঙ্গাইলে নারী উত্যক্তকারী একটি চক্রের মুখোশ উন্মোচিত হয়েছে। আজ মঙ্গলবার এই চক্রের চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। চক্রের প্রত্যেক সদস্যকে গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

ভুক্তভোগি ওই ছাত্রী জানান, শহরের ভিক্টোরিয়া রোডের ক্যাপসুল মার্কেট এলাকায় একদল বখাটে যুবক আড্ডা দেয়। তারা ওই মার্কেটের পাশের রাস্তা দিয়ে চলাচলকারী স্কুল-কলেজের ছাত্রীসহ নারীদের উত্যক্ত করে। নানা অশ্লীল অঙ্গভঙ্গিও প্রদর্শন করে। গত রোববার ওই ছাত্রী ক্যাপসুল মার্কেটের পেছনের রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় এক বখাটে যুবক তাকে উদ্দেশ্য করে অশ্লীল মন্তব্য করে। মেয়েটি এর প্রতিবাদ করলে ওই যুবকের সাথে তার কয়েক সহযোগী এসে যোগদিয়ে আরো অনেক কটূক্তি করে।

এক পর্যায়ে উত্যক্তকারী যুবকের ছবি মুঠোফোনে ধারন করে ওই মেয়ে। পরে উত্যক্তকারীর ছবি STAND AGAINST RAPE- হোক প্রতিরোধ’ নামক একটি ফেসবুক গ্রুপের ম্যাসেঞ্জারে পাঠিয়ে দেন। ওই ফেসবুক গ্রুপের এডমিন টাঙ্গাইলের সন্তান বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কর্মরত চিকিৎসক ইমরান কায়েস উত্যক্তকারী যুবকের ফেসবুক আইডিতে ঢোকেন। সেখানে দেখা যায় উত্যক্তকারী ওই যুবক শহরের থানাপাড়া এলাকার মফিজুল আলমের ছেলে তৌহিদ রহমান ওরফে রাতুল। রাতুল ও তার দলের সদস্যরা বিভিন্ন সময় ক্যাপসুল মার্কেট এলাকায় নারীদের উত্যক্ত করে তার ভিডিও চিত্র ফেসবুকে ছেড়ে দিতো। এ ধরনের উত্যক্ত করার একটি দৃশ্য রাতুলের ফেসবুক থেকে নামিয়ে STAND AGAINST RAPE- হোক প্রতিরোধ’ গ্রুপে ইমরান কায়েস সোমবার (১১জুন) পোস্ট করেন এবং এদের প্রতিরোধের আহবান জানান। এই ভিডিও সোমবার রাতের মধ্যেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়। নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান অসংখ্য মানুষ। উত্যক্তকারীদের শাস্তির দাবিতে শতশত মানুষ নানা মন্তব্য করেন।

এ বিষয়টি নজরে আসে টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায়ের। সোমবার রাতেই উত্যক্তকারিদের গ্রেপ্তারের জন্য গোয়েন্দা পুলিশের একাধিক দলকে দায়িত্ব দেন। পুলিশ মঙ্গলবার সকালে উত্যক্তকারি দলের মূল হোতা তৌহিদুর রহমান ওরফে রাতুল (২০), এনায়েতপুর এলাকার কাউছার আহমেদ (২৮), বাঘিল ইউনিয়নের বিলমুড়িল গ্রামের রবিন হাসান (২০) ও রাকিব আলমকে (২১) গ্রেপ্তার করে।

এদিকে বিকেলে তিনটার দিকে এই উত্যক্তকারি দলের সদস্যদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে ক্যাপসুল মার্কেটের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন চলাকালে টাঙ্গাইল ক্লাবের সহসভাপতি হারুন অর রশীদ, টাঙ্গাইল চেম্বার অব কমার্সের সাধারণ সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া, নাট্যকর্মী সাম্য রহমান, সরকারি সা’দত কলেজের ইংরেজী বিভাগের শিক্ষক কুশল ভৌমিক প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় মজলুমের কণ্ঠকে জানান, উত্যক্তকারী এই চক্রের প্রত্যেক সদস্যকে চিহিৃত করে গ্রেপ্তারের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

Related Articles