টাঙ্গাইলে টাকা নেওয়ার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আদালতের নাজিরকে বাধ্যতামূলক অবসর প্রদান

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ  টাঙ্গাইল জেলা ও দায়রা জজ আদালতের নাজির মো. নাসির উদ্দিনকে অনিয়মের অভিযোগে বাধ্যতামূলক অবসর প্রদান করা হয়েছে।

সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) টাঙ্গাইল জেলা জজ আদালতের বিচারক ফাহমিদা কাদের এ আদেশ দেন।

আদালত সুত্র জানায়, নাজির মো. নাসির উদ্দিনের বিরুদ্ধে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের জারিকারক ও অন্যান্য কর্মচারীসহ ২৯ জন (স্মারক নং-১৫২ (১-২) গত ২৫ এপ্রিল লিখিত অভিযোগ দেন।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, জারিকারকসহ আদালতের অন্যান্য কর্মচারীদের কাছ থেকে প্রতি মাসে প্রতি হাওলায় জনপ্রতি টাকা দাবি করেন মো. নাসির উদ্দিন। প্রতি জরুরি সমনের জন্য ৫০০ টাকা করে দিতে হয় তাদের।

এছাড়া প্রতি জারিকারকের কাছ থেকে নেওয়া হয় দুই হাজার টাকা করে।

অভিযোগে আরো বলা হয়, অফিস চত্বরে ময়লা আবর্জনা পরিষ্কারের জন্য সরকারিভাবে টাঙ্গাইল পৌরসভা কর্তৃক নিয়োজিত লোক দিয়ে কাজ করানো হলেও সেই কাজের জন্য জারিকারকদের কাছ থেকে টাকা আদায় করা হয়।

জেলা ও দায়রা জজ ফাহমিদা কাদের এসব অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে মো. নাসির উদ্দিনকে শোকজ করেন। তাকে ১০ কর্মদিবসের মধ্যে লিখিতভাবে শোকজের (কারণ দর্শানোর নোটিশ) জবাব দিতে বলা হয়। কিন্তু শোকজের জবাব গ্রহণযোগ্য না হওয়ায় সহকারী কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা, ২০১৮ সনের ৩ এর (খ) বিধির আওতায় নাসির উদ্দিনকে অভিযুক্ত করে অভিযোগ তদন্তের জন্য টাঙ্গাইল যুগ্ম জেলা জজ ওয়ায়েজ আল করনী (৩য় আদালত) ০২/২০২১ নং বিভাগীয় মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এবং কালিহাতী সহকারী জজ আদালতের সহকারী জজ এম সাইফুল ইসলামকে উপস্থাপনকারী নিযুক্ত করা হয়। তারা ২৯জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ করে ৫টি অভিযোগের মধ্যে তিনটি অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় মোঃ নাসির উদ্দিনের সাজা প্রার্থনা করে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। এর প্রেক্ষিতে নাজির মোঃ নাসির উদ্দিনকে চাকুরী থেকে বাধ্যতামূলক অপসারণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। ৬ সেপ্টেম্বর ২৪৮ নং স্মারকমূলে নাসির উদ্দিনের উপর সাত দিনের কারণ দর্শানোর নোটিশ জারী করা হয় এবং পরবর্তীতে তার ১৫ সেপ্টেম্বর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ১৯ সেপ্টেম্বরের মধ্যে কারন দর্শানোর নির্দেশ দেয়া হয়। পরে ১৯ সেপ্টেম্বর নাজির মোঃ নাসির উদ্দিন ৭৩/ ন নং স্মারক মূলে কারন দর্শানোর নোটিশের লিখিত জবাব দেন। সেই জবাব সন্তোষজনক না হওয়ায় সকল কিছু পর্যালোচনা করে জনস্বার্থে মোঃ নাসির উদ্দিনকে বাধ্যতামূলক অবসর প্রদানের সিদ্ধান্ত হয়।

সহকারী কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা, ২০১৮ সনের ৪ (৫) ( গ) বিধির সহিত পঠিতব্য ৪ (৩) ( খ) বিধি অনুযায়ী জেলা জজ আদালতের বিচারক ফাহমিদা কাদের নাজির মোঃ নাসির উদ্দিনকে দোষী সাব্যস্ত করে তাকে চাকরি থেকে বাধ্যতামূলক অবসর প্রদানের আদেশ দেন।

Related Articles