টাঙ্গাইলে তৃতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচন সম্পন্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক:

টাঙ্গাইলের ৩টি উপজেলার ২৪টি ইউনিয়ন পরিষদ ও একটি পৌরসভায় ভোটগ্রহণ চলছে। রবিবার (২৮ নভেম্বর) সকাল ৮টা থেকে জেলার কালিহাতী, মধুপুর ও নাগরপুরে ব্যালটে ও ঘাটাইল পৌরসভায় ইভিএমের মাধ্যমে শান্তিপূর্ণভাবে এ ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। শীত ও ঘণ কুয়াশায় সকালের দিকে ভোটার উপস্থি অনেকটা ছিলো। কালিহাতী উপজেলার নারান্দিয়া ইউনিয়নের আনোয়ারা হাসেম মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে এমন চিত্র দেখা গেছে। তবে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে তিন উপজেলাতেই একই চিত্র।

বেলা বাড়ার সাথে সাথে আলোর মূখ দেখা গেছে। এর সাথে কিছুটা বাড়ছে ভোটার উপস্থিতি যথেষ্ট ছিল।

জানা যায়, ঘাটাইল পৌরসভা নির্বাচনে চার জন মেয়রপ্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। এ পৌরসভায় কাউন্সিলর পদে ২৫ জন এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৯ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। এ ছাড়া কালিহাতী, মধুপুর ও নাগরপুর উপজেলার ২৩টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৯৬ জন প্রতিদ্ব›দ্বীতা করছেন। সাধারণ সদস্য পদে ৮৬৮ জন এবং সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ২৭৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। বাকি একটি কালিহাতী উপজেলার পাইকড়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বিনা প্রতিদ্ব›দ্বীতায় চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন।

চারটি নির্বাচনি এলাকায় মোট ভোটার সংখ্যা ৫ লাখ ৩৭ হাজার ১৬৪ জন। ভোট কেন্দ্র ২৪৬টি। নির্বাচনে ১২ প্লাটুন বিজিবিসহ পর্যাপ্ত সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছিল।

ঘাটাইলের মুকুল একাডেমী উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তা শাহ কামাল পাশা বলেন, পৌরসভার ৭নম্বর ওয়ার্ডে যথাসময়ে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। এখানে ইভিএমের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ নেয়া হয়েছে।  শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ হয়েছে।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এএইচ এম কামরুল হাসান বলেন, ‘শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। নির্বাচনে পর্যান্ত সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়েছিল।’

প্রসঙ্গত, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গত ২৬ নভেম্বর জেলার নাগরপুর উপজেলার দপ্তিয়র ইউনিয়নের পাইকাইল গ্রামে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আওয়ামী লীগ নেতা আক্কেল মেম্বারের ছেলে তোতা শেখ (৪০) নিহত হন। এঘটনায় নিহতের ভাই রফিক শেখসহ চারজন আহত হয়।

(মজলুমের কণ্ঠ / ২৮ নভেম্বর / আর.কে)

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related Articles