হুগড়া ইউপি নির্বাচন: আ.লীগ প্রার্থীর বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মীর উপর হামালর অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক:

টাঙ্গাইল সদর উপজেলা হুগড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মী সমর্থকদের উপর হামলা ও নির্যাতন করার অভিযোগ উঠেছে আওয়ামী লীগ সমর্থীত প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী তোফাজ্জল হোসেন খান তোফার বিরুদ্ধে।

রবিবার (১৯ ডিসেম্বর) দুপুরে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করা হয়। হুগড়া ইউনিয়নবাসীর ব্যানারে এ সংবাদ সম্মেলন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন হুগড়া ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. নূর এ আলম তুহিন। তিনি বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অপর চেয়ারম্যান প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেন খান তোফা নিজে নেতৃত্ব দিয়ে তার কর্মী সমর্থকদের উপর বিভিন্ন সময় হামলা, নির্যাতন করছেন। তার হামলার শিকার হয়ে অন্তত আটজন গুরুতর আহত হয়েছেন। মৈশা গ্রামের তোফাজ্জলকে বেধড়ক পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে দেয়া হয়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তিনি ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। হামলার শিকার হয়ে আরেকজনের মাথার খুলি ভেঙ্গে ভেতরে ঢুকে পড়েছিল। তাকেও ঢাকায় চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। তিনি এখন চোখে দেখতে পান না এবং তার স্মৃতিশক্তি নষ্ট হয়ে গেছে। গত ১৫ ডিসেম্বর চরহুগড়া গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছয় বছরের শিশুপুত্রকে লাঠি দিয়ে মাথায় আঘাত করা হয়। এতে তার মাথা ফেটে যায়। এছাড়াও আরো অনেককে নানাভাবে হুমকি দেয়া হচ্ছে। এভাবে ভোটারদের মধ্যে ভয়-ভীতির সৃষ্টি করা হচ্ছে।

সম্মেলনে আরো অভিযোগ করা হয়, স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রচারণায়ও বাধা দিচ্ছেন তোফাজ্জল হোসেন খান তোফা। নির্বাচনী অফিস ভাংচুর, পোস্টার ছিড়ে ফেলারও অভিযোগ করা হয় তার বিরুদ্ধে।

এসব অভিযোগ জানিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য টাঙ্গাইল সদর থানায় ও নির্বাচন অফিসে লিখিত আবেদন করা হয়েছে বলে জানান মো. নূর এ আলম তুহিন। একই সাথে নির্বাচনকে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করার জন্য পরিবেশ সৃষ্টি করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ারও সহায়তা চান তিনি।

মজলুমের কণ্ঠ / ১৯ ডিসেম্বর / আর.কে)

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related Articles