মির্জাপুরে ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে ব্ল্যাকমেইল, অভিযুক্ত আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক:

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ধর্ষণের ভিডিও ধারণ ও ছবি তুলে এক নারীকে বø্যাকমেইল করে একাধিকবার ধর্ষণ ও টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে লুৎফুর রহমান (৪০) নামের এক ব্যক্তিকে আটক করেছে র‌্যাব। মঙ্গলবার দুপুরে র‌্যাব-১২ সিপিসি-৩-এর টাঙ্গাইলের কোম্পানি কমান্ডার লে. কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন এতথ্যটি নিশ্চিত করেছেন। এরআগে সোমবার (১০ জানুয়ারি) রাতে উপজেলার পাকুল্লা এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

অভিযুক্ত লুৎফুর রহমান উপজেলার ছিতেশ^রী গ্রামের মইনুল হকের ছেলে। তিনি একটি প্রাইভেট ঔষুধ কোম্পানীতে চাকরি করেন।

র‌্যাবের কোম্পানী কমান্ডার জানান, লুৎফুর রহমান একটি প্রাইভেট ঔষুধ কোম্পানীতে চাকরি করে। চাকরির সুবাদে সে এক নারীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে। এমতাবস্থায় ওই নারীকে ফুঁসলিয়ে ধর্ষণ করে এবং গোপনে ভিডিও ও ছবি তুলে রাখে লুৎফুর রহমান। পরবর্তীতে লৎফুর ভিকটিমকে বø্যাকমেইল করে ভিডিও ও ছবি প্রকাশের ভয় দেখিয়ে দীর্ঘদিন ধর্ষণ করে। এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে ভিকটিমের ভাষ্যমতে প্রায় ২০ লাখ টাকা ও ১৫ ভরি স্বর্ণলংকার হাতিয়ে নেয়। লুৎফুর সব সময় ভিকটিমকে প্রচন্ড মানসিক চাপে রাখত। ওই নারী নিরুপায় হয়ে সম্প্রতি টাঙ্গাইল র‌্যাব অফিসে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। পরে ঘটনাটির সত্যতা পাওয়া যায়। এরপর অভিযুক্তকে গ্রেফতারে অভিযান চালানো হয়। পরে সোমবার রাতে অভিযুক্ত লুৎফুরকে আটক করা হয়েছে। এসময় ধারণকৃত ভিডিওসহ মোবাইল ও ল্যাপটব জব্দ করা হয়। অভিযুক্ত লুৎফুরের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন এবং পর্নোগ্রাফি আইনে মির্জাপুর থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও তিনি জানান।

মজলুমের কণ্ঠ / ১১ জানুয়ারি / আর.কে)

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related Articles