দেলদুয়ারে পুরোহিতের রহস্যজনক মৃত্যু

দেলদুয়ার প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের দেলদুয়ারে হিন্দু পুরোহিতের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। আজ সোমবার সকাল পৌনে ৭ টায় পরনের ধূতি দিয়ে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় তার নিজ বসত ঘরের খাটে লাশ পাওয়া যায়। অবস্থাদৃষ্টে এবং এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে ঘটনাটি সাজানো নাটক।

অভিযোগ ওঠেছে পুত্রহীন ওই পুরোহিতের স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি আত্মসাতের উদ্দেশে তার নিকটাত্মীয়ের কেউ পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে আত্মহত্যার নাটক সাজিয়েছে।

ওই পুরোহিতের নাম তপন কুমার বিশ্বাস (৬০)। সে আটিয়া ইউনিয়নের পিরোজপুর গ্রামের মৃত অনিল কুমার বিশ্বাসের ছেলে।

এলাকাবাসি জানায়, সম্পদশালী ওই পুরোহিতরা তিন ভাই। অন্য ভাইদের ছেলে সন্তান থাকলেও তপন কুমারের তিনটি মেয়ে। মেয়েদের বিয়ে হয়ে গেছে অনেক আগেই। চার বছর আগে তার স্ত্রী মারা গেছে। এর মধ্যে সে বিয়ে করার জন্য পাগল প্রায় হয়ে উঠে। বিয়ে করলে সম্পদের ওয়ারিশদার তৈরি হবে এমন আশঙ্কায় বাঁধ সাধেন আপন ভাতিজারা। এর মধ্যে কিছু সম্পদ ভাতিজারা লিখে নিয়েছে এমন অভিযোগও তোলেন প্রতিবেশীরা। তাদের সন্দেহ ব্যাংক হিসাবে গচ্ছিত মোটা অংকের টাকাও হাতিয়ে নিয়েছে ভাতিজারা। ভাতিজা তন্ময় বিশ্বাস জানান, সকাল পৌনে ৭ টায় কাকার ঘরে ঢুকে তাকে খাটের ওপর আড়ার সঙ্গে ধূতির মাধ্যমে ফাঁসিতে ঝুলতে দেখা যায়। পরে তাকে দ্রুত ধূতির বাধন খুলে বাঁচানোর চেষ্টা করা হয়। এসময় ঘরের দরজা খোলা ছিল বলেও জানায় সে।

এ ব্যাপারে লাশের সুরতহাল প্রস্তুতকারী পুলিশ কর্মকর্তা এসআই আশরাফ জানান, আপাতত একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। ময়না তদন্ত রিপোর্ট পেলে বলা যাবে ঘটনাটি হত্যা না আত্মহত্যা।

Related Articles