টাঙ্গাইলে বাস যাত্রীদের থেকে গলাকাটা ভাড়া আদায়

নিজস্ব প্রতিবেদক : ঈদ শেষে নিজ কর্মস্থলে যাওয়ার জন্য সবাই ব্যস্ত। তাই টাঙ্গাইল নতুন বাসস্ট্যান্ডে ভীর করছেন সাধারণ যাত্রীরা। আর এই সুযোগে পরিবহন মালিক ও শ্রমিকরা সাধারণ যাত্রীদের কাছ থেকে গলাকাটা ভাড়া আদায় করছে।

শনিবার (২৫ আগস্ট) সকালে নতুন বাসস্ট্যান্ডে গিয়ে দেখা যায়, নিরালা সুপার সার্ভিস, সোনিয়া ও সকাল-সন্ধ্যাসহ বিভিন্ন টিকিট কাউন্টারে যাত্রীদের দীর্ঘ লাইন।

এসময় তারা অভিযোগ করে বলেন, স্বাভাবিক দিনের তুলনায় এবার ঈদের পর তাদের কাছ থেকে দ্বিগুন ভাড়া নেয়া হচ্ছে। তবুও তারা বাধ্য হয়েই বেশি ভাড়া দিয়ে ঢাকায় যাচ্ছেন।

আব্দুর রহমান নামের এক যাত্রী জানান, সকাল ১১টায় তিনি ঢাকা যাওয়ার জন্য নিরালা সুপার কাউন্টারে এসেছেন। এখানে এসে দেখেন টিকিটের মূল আগের ১৬০টাকার পরিবর্তে ঈদ উপলক্ষে ২৫০টাকা।

এ বিষয়ে কাউন্টারে জিজ্ঞেস করলে তারা তাকে বলেন এই দামে টিকিট নিলে নেন, না হলে না নেন। পরে তিনি বাধ্য হয়েই ২৫০ টাকায় টিকিট নিয়ে ঢাকায় যাচ্ছেন।

মোহাম্মদ আলী নামের অপর এক যাত্রী ঢাকায় যাওয়ার টিকিটের জন্য অপেক্ষা করছেন সোনিয়া কাউন্টারে। সেখানে তার কাছ থেকে টিকিটের মূল নেয়া হয়েছে ৪০০টাকা।

অথচ ঈদের আগেও টিকিটের মূল ছিল আড়াইশ টাকা। তিনি ঢাকায় একটি বেসরকারি সংস্থ্যায় চাকুরী করেন। তাই তিনি বাধ্য হয়েই ৪০০ টাকা দিয়ে টিকিট কিনেছেন।

একই অবস্থা সকাল-সন্ধ্যা, ঝটিকা ও ধলেশ্বরী পরিবাহনে। তারাও সাধারণ যাত্রীদের জিম্মি করে দ্বিগুন ভাড়া আদায় করছে। এতে করে চরম হয়রানির শিকার হচ্ছেন সাধারণ যাত্রীরা। তারা অভিযোগ করেন, সরকারের পক্ষ থেকে ঘোষনা দেয়া হয়েছে যে, বাসে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়কারি ও এর সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় আনা হবে। কিন্তু এর বাস্তবতাতো দেখা যাচ্ছে না। অথচ পরিবহন মালিক ও শ্রমিকরা সেই ঘোষনাকে বৃদ্ধাগুলি দেখিয়ে তাদের মতো সাধারণ যাত্রীদের কাছ থেকে গলাকাটা ভাড়া আদায় করছে।

এ বিষয়ে টাঙ্গাইল বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক রাশেদুর রহমান তাবিব মজলুমের কণ্ঠকে জানান, ঈদ উপলক্ষে সারাদেশের ন্যায় টাঙ্গাইলেও তিন থেকে চারদিন অতিরিক্ত ভাড়া নেয়া হবে। এর কারন হিসেবে তিনি জানান, ঢাকায় যাত্রী নিয়ে যাওয়ার পর সেই গাড়ি টাঙ্গাইলে খালি আসতে হয়। সেই ক্ষেত্রে যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া নিয়ে ঢাকা থেকে ফেরত আসার জন্য গাড়ির তেল খরচটা নেয়া হচ্ছে।

Related Articles