জন্মদিনে পুলিশ কর্মকর্তা উত্তমের শেষকৃত্য সম্পন্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক : ঢাকায় বাস চাপায় নিহত উত্তম কুমার সরকারের লাশ সোমবার রাত পৌনে নয়টায় তার গ্রামের বাড়ি কালিহাতী উপজেলার বেতডোবা গ্রামে পৌছে। এর পর তার মাকে ছেলের লাশ একনজর দেখিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় কালিহাতী কেন্দ্রীয় শশ্মান ঘাটে সৎকারের জন্য।

এসময় শতশত গ্রামবাসি শশ্মান ঘাটে গিয়ে হাজির হয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। এদিকে উত্তমের লাশ রাতে বাড়িতে পৌঁছানোর পর তার স্বজনদের কান্নায় যেন আকাশ ভেঙে পড়ে। লাশ একবার দেখার জন্য বাড়িতে ছুটে আসেন এলাকার শতশত মানুষ।

পরিবারের লোকজন ও প্রতিবেশীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, গ্রামের ভজন সরকারের ছেলে উত্তম লেখাপড়ায় ছিলেন যেমন মেধাবী, তেমনি খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনেও ছিল তাঁর সরব পদচারণ। গিটার, তবলা, বাঁশি যেমন বাজাতেন, তেমনি ক্রিকেটের মাঠেও ছিলেন কালিহাতীর সেরা।

কালিহাতী আরএস হাইস্কুল থেকে এসএসসি, কালিহাতী কলেজ থেকে এইচএসসি পাসের পর উত্তম ভর্তি হন ভারতের বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ে। সেখান থেকে ২০০৮ সালে মার্কেটিংয়ে বিবিএ শেষ করে দেশে আসেন। ২০১২ সালে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে কনস্টেবল পদে যোগ দেন। পদোন্নতি পেয়ে উপপরিদর্শক (এসআই) হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

গত রোববার ঢাকায় ঈগল পরিবহনের জব্দ করা একটি বাসের চাপায় নিহত হন পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) উত্তম সরকার।

Related Articles