জাতীয় বেইমানরাই জাতীয় ঐক্যে যোগ দিয়েছে : তারানা হালিম (ভিডিও সহ)

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রতিমন্ত্রী এ্যাড. তারানা হালিম বলেছেন, আওয়ামীলীগের উচ্ছিষ্ঠ ও পদ বঞ্চিতরাই জাতীয় ঐক্যে যোগ দিয়েছেন।

জাতীয় ঐক্যের অধিকাংশ নেতাই আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন চেয়ে পাননি। এখন তারা জাতীয় ঐক্যে গেছেন। আমরা যদি প্রশ্ন করি যেই বঙ্গবন্ধু আপনাদের নেতা বানাল, যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনাদের মুরুব্বি বলে মানল, তার দলে ঠাই দিল সেই নেত্রীর বিরুদ্ধে আপনারা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হন কিভাবে। যারা এভাবে ষড়যন্ত্র করতে পারে তারা শুধু অনৈক্যের জন্ম দিতে পারে, তারা কোন দিন জাতীয় ঐক্যের জন্ম দিতে পারেনা।

“শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদ” দেলদুয়ার উপজেলা শাখার আয়োজনে ও শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষ্যে তিনি বৃহস্পতিবার দুপুরে টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

এসময় প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, আমাদের নেত্রির সঙ্গে যারা বেঈমানি করেছে তারা জাতীয় ঐক্যে যোগ দিয়েছেন। যারা নিজ নেতৃত্বের সাথে বেঈমানি করে তারা অন্ততপক্ষে জাতীয় ঐক্যে করতে পারেনা। যে ঐক্যের ভিত্তি বেঈমানি হয় তারা কখনই ঐক্য সৃষ্টি করতে পারেনা এটা মনে রাখবেন। আপনারা যে বিএনপির সঙ্গে হাত মিলিয়েছেন সেই বিএনপি কারা? যারা শিশু রাসেল কে হত্যা করেছিল, যারা প্রধানমন্ত্রীর পরিবারকে হত্যা করে নিশ্চিহ্ন করতে চেয়েছিল, যারা এক এগারো জন্ম দিয়েছিল, যারা ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা করেছিল, যারা নেত্রিকে মেরে ফেলার জন্য ৭৫ কেজি বোমা পুঁতে রাখে, যারা ৬৪ জেলায় একসঙ্গে বোমা হামলা করে তাদের সঙ্গে আপনারা জাতীয় ঐক্যের ডাক দেন। এতো রাজনীতি দেউলিয়াপণায় আপনারা ভোগেন যে, আপনারা জঙ্গি সন্ত্রাসী কিছুই দেখেন না। জামায়াতের সাথে যারা রাজনীতি করে তাদের সাথে এক মঞ্চে যান, এতো নেতৃত্বের কাঙ্গাল যারা হয় তারা অন্তত জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলতে পারেনা। আমরা দৃঢ কন্ঠে বলতে পারি আওয়ামীলীগ যদি আমাদের কোন পদ পদবি কোন কিছু না দেন তবুও আমরা নেত্রির জন্য রাজপথে থাকব।

শিশু কিশোর পরিষদ দেলদুয়ার উপজেলা শাখার আহ্বায়ক আলমগীর হোসেন সানীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদের টাঙ্গাইল জেলা শাখার সভাপতি জাফর আলী খান, প্রধান আলোচক ছিলেন, কেন্দ্রিয় সদস্য ও টাঙ্গাইল জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক মোঃ সাজিদ খান।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক রফিকুল ইসলাম খান, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি খন্দকার ফজলুল হক, সহ-সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব লায়ন এম. শিবলী সাদিক, দেলদুয়ার থানার ওসি সাইদুল হক ভূঁইয়া প্রমুখ।

Related Articles