মির্জাপুরে বারি সরিষা-১৪ ও ১৭ এর উৎপাদন কার্যক্রম শীর্ষক মাঠ দিবস

নিজস্ব প্রতিবেদক : চাষী পর্যায়ে বিএআরআই কর্তৃক উদ্ভাবিত বারি সরিষা-১৪ ও বারি সরিষা-১৭ এর উৎপাদন কার্যক্রম শীর্ষক মাঠ দিবস শনিবার (২৬ জানুয়ারি) টাঙ্গাইলের মির্জাপুরের ঘুগী গ্রামে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএআরআই এর মহাপরিচালক ড. আবুল কালাম আজাদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন তৈল বীজ গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালক ড. মো. লুৎফর রহমান, মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ও প্রকল্প পরিচালক ড. মো. আব্দুল লতিফ আকন্দ, টাঙ্গাইল খামারবাড়ী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক মো. রওশন আলম। সভাপতিত্ব করেন বিএআরআই গাজীপুর সরেজমিন গবেষণা বিভাগের মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. আক্কাস আলী।

মাঠ দিবসে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিএআরআই টাঙ্গাইলের সরেজমিন গবেষণা বিভাগের উর্দ্ধতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. আমিনুর রহমান। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সরেজমিন গবেষণা বিভাগ টাঙ্গাইলের উর্দ্ধতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো. আশিকুর রহমান। অনুষ্ঠানে বারি সরিষা-১৪ এবং বারি সরিষা-১৭ এর উৎপাদন কার্যক্রমের গুরুত্ব আলোচনা করা হয়।

মহাপরিচালক বলেন বারি সরিষা-১৪ এবং বারি সরিষা-১৭ স্বল্প মেয়াদি উচ্চ ফলনশীল সরিষার জাত। এ জাতগুলো ফসল সংগ্রহ করতে টরী-৭ এর চেয়ে ৫ থেকে ৭ দিন বেশি সময় লাগে। ফলন টরি-৭ এর চেয়ে প্রায় দেড় থেকে দ্বিগুণ বেশি। সরিষার জাত দুটি টরি-৭ বা মাঘি জাতের পরিবর্তে সরিষা-বোরো-রোপা আমন ফসল ধারায় চাষ করে অধিক লাভবান হওয়া সম্ভব। এর বীজে তৈল এবং খৈলে আমিষের পরিমাণও বেশি।

মাঠ দিবসে চাষীদের সরিষার উৎপাদন কলাকৌশল সম্পর্কে বিভিন্ন প্রশ্নের যথাযথ উত্তর দেন বিএআরআই গাজীপুরের সরেজমিন গবেষণা বিভাগের মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. আক্কাস আলী। তৈল বীজ গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালক ড. মো. লুৎফর রহমান ও প্রকল্প পরিচালক ড. মো. আব্দুল লতিফ আকন্দ আগামীতে চাষীদের বারি সরিষা-১৪ ও বারি সরিষা-১৭ আবাদের জন্য কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এবং চাষীদেরকে পরামর্শ দেন। মাঠ দিবসে সরেজমিন গবেষণা বিভাগের বিজ্ঞানীবৃন্দ, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা, বৈজ্ঞানিক সহকারী, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাসহ প্রায় দুই শতাধিক সরিষা চাষী উপস্থিত ছিলেন।

 

Related Articles