বাক প্রতিবন্ধী আনিকা পরিবারের কাছে ফিরতে চায়

নিজস্ব প্রতিবেদক (ভূঞাপুর)  : কথা বলতে না পারলেও কাগজে তার নাম আনিকা লিখতে পারে। এছাড়া কিছু লিখেতে পারে না। শুক্রবার (৩১ মে) সন্ধ্যায় তাকে ভূঞাপুর উপজেলার ফলদা বাজারে পাওয়া যায়। এর আগে বাক প্রতিবন্ধী আনিকাকে (১৪) অটোরিক্সার চালক সেখানে নামিয়ে দিয়ে যায় বলে এলাকাবাসীর বরাত দিয়ে জানিয়েছে পুলিশ।

পরে ফলদা শরিফুন্নেছা বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রাতে মেয়েটিকে ভূঞাপুর থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করে। ভূঞাপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) টিটু চৌধুরী মেয়েটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

ভূঞাপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) টিটু চৌধুরী বলেন, মেয়েটি শুধু তার নাম লিখতে পারে। এছাড়া তার সাথে একটি ভ্যানিটি ব্যাগ রয়েছে। মেয়েটি হিন্দু পরিবারের সন্তান। সম্ভবত মেয়েটি কথা বলতে না পারায় অজ্ঞাত অটোরিক্সা চালক তাকে ফলদা বাজারে নামিয়ে দিয়ে গেছে। এরপর মেয়েটিকে ঘিরে সেখানে লোকজনের সমাগত হয়।

পরে স্থানীয়রা বিভিন্ন স্থানে খোঁজ-খবর নিয়ে মেয়েটির পরিবার না পেয়ে থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে। পরে থানা পুলিশের পক্ষ থেকে পার্শ্ববর্তি গোপালপুর থানাসহ টাঙ্গাইল পুলিশ সুপার অফিসে তার ছবি পাঠানো হয়েছে পরিচয় বের করার জন্য।

তিনি আরো বলেন, আজ শনিবার (০১ জুন) মেয়েটিকে নিয়ে ফলদা বাজারসহ বিভিন্ন জায়গায় তার পরিচয় জানার জন্য যাওয়া হচ্ছে। এরপরও যদি মেয়েটির পরিবারের কোন খোঁজ না পাওয়া যায় তাহলে সমাজসেবা কার্যালয়ের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Related Articles