টাঙ্গাইলে কাউন্সিলরের বাসায় শিক্ষার্থী ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত ধর্ষক বাচ্চু গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক : টাঙ্গাইল প্রথম শ্রেণীর ৮ বছরের এক শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত বাচ্চুকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১২ এর সদস্যরা। বৃহস্পতিবার ভোরে ঘাটাইল উপজেলার সাতকুয়া খাজার চালা পাহাড়ি গভীর জঙ্গল থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত বাচ্চু মিয়া (৫০) টাঙ্গাইলের সদর উপজেলার পশ্চিম আকুরটাকুর পাড়ার হাউজিং মাঠ এলাকার মৃত তারাব আলীর ছেলে।

এর আগে গত ১ সেপ্টেম্বর রোববার দুপুরে টাঙ্গাইল পৌরসভার কাউন্সিলর হেলার ফকিরের শহরের আকুরটাকুর পাড়া বাসায় ওই শিক্ষার্থী ধর্ষণের শিকার হয়।

এ ব্যাপারে র‌্যাব-১২, সিপিসি-৩- এর কোম্পানীর ভারপ্রাপ্ত কমান্ডার শফিকুর রহমান বলেন, এ ঘটনার পর অভিযুক্ত বাচ্চু আত্মগোপনে ছিলেন। পরে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে বৃহস্পতিবার ভোর ৪ টার দিকে সাতকুয়া খাজার চালা পাহাড়ি গভীর জঙ্গল থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাকে পুলিশের কাছে দেয়া হয়।

উল্লেখ্য, পুলিশ সূত্রে ও মামলার বিবরণে জানা যায়, টাঙ্গাইল পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হেলাল ফকিরের পশ্চিম আকুর টাকুর পাড়া হাউজিং মাঠের বাসায় ছেলে বাচ্চু ভাড়া থাকতো। তিনি বাবুটির কাজ করতেন। একই বাসায় ওই শিক্ষার্থীর দাদা-দাদিও ভাড়া থাকে। শিক্ষার্থীর বাবা ঢাকায় সিএনজি চালানোর সুবাধে বাবা মা ঢাকায় থাকে। গত ১ সেপ্টেম্বর রোববার দুপুরে শিক্ষার্থীকে বাসায় একা পেয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। শিক্ষার্থীর চিৎকারে আশে পাশের লোকজন এগিয়ে আসলে বাচ্চু পালিয়ে যায়। বিষয়টি প্রথমে পারিবারিক সমাধান করার চেষ্টা করলে পরবর্তীতে সমাধান করা সম্ভব হয়নি। পরে শিক্ষার্থীকে সোমবার ২ সেপ্টেম্বর রাত ১২ টার দিকে চিকিৎসার জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। পরে মঙ্গলবার টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ওই শিক্ষার্থীর ডাক্তারি পরীক্ষা নিরীক্ষার সম্পন্ন হয়েছে। একই সাথে এ দিন ২২ ধারায় ওই শিক্ষার্থী আদালতে জবানবন্দি দেয়।

Related Articles