রাজকীয় উপাধি হারালেন হ্যারি-মেগান

অনলাইন ডেস্ক :

ডিউক অব সাসেক্স প্রিন্স হ্যারি ও তার স্ত্রী ডাচেস অব সাসেক্স মেগান মার্কেল আর নিজেদের রাজকীয় উপাধি ব্যবহার করতে পারবেন না। একইসঙ্গে রাজকীয় দায়িত্বের জন্য তারা আর পাবলিক তহবিলও গ্রহণ করবেন না।

শনিবার (১৮ জানুয়ারি) বাকিংহাম প্যালেস এ ঘোষণা দেয় বলে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি থেকে জানা যায়। প্রিন্স হ্যারি এবং মেগানের রাজকীয় উপাধি হচ্ছে সাসেক্সের ডিউক ও ডাচেস।

তবে এ ঘোষণা এখনই কার্যকর হবে না। আসছে বসন্ত থেকে তারা আর ব্রিটেনের রানির প্রতিনিধিত্বও করবেন না।

এ বিষয়ে হ্যারি-মেগান দম্পতি জানিয়েছেন, ব্রিটেনে নিজেদের ফ্রগমোর কটেজ সংস্কার করতে যে সরকারি অর্থ অর্থাৎ প্রায় ২৫ লাখ পাউন্ড খরচ হয়েছে, তা তারা পরিশোধ করে দেবেন। এছাড়া যুক্তরাজ্যে অবস্থানকালে তারা এখন থেকে ওই কটেজেই থাকবেন বলে জানা গেছে।

এদিকে, শনিবার রানির পক্ষ থেকে দেওয়া বিবৃতিতে বলা হয়েছে, কয়েক মাসের আলোচনার মাধ্যমে রানি মনে করেন, তার নাতি এবং তার পরিবার পারস্পরিক সহযোগিতার ভিত্তিতে এগিয়ে যাবেন। তিনি হ্যারি-মেগান ও তাদের সন্তান আর্চি সবসময় এই পরিবারের অতি আপনজন হয়ে থাকবেন বলে আশা প্রকাশ করেন।

এর আগে হঠাৎ রাজকীয় দায়িত্ব ছেড়ে দেওয়ার ঘোষণা দিয়ে হৈচৈ ফেলে দেন হ্যারি-মেগান দম্পতি। তখন তারা বলেন, জনগণের অর্থের ওপর নির্ভরশীল না হয়ে নিজেরা আয় করে স্বাধীনভাবে জীবনযাপন করতে চাই। একইসঙ্গে সন্তান নিয়ে ভাগাভাগি করে ব্রিটেন ও উত্তর আমেরিকায় সময় কাটানোর কথা জানান তারা।

এই ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তে চমকে ওঠে ব্রিটিশ রাজপরিবার। একপর্যায়ে তাদের সঙ্গে আলোচনায় বসেন রাজপরিবারের সিনিয়র সদস্যরা। যার ফল আসে হ্যারি-মেগানের ঘোষণা মতোই।

(মজলুমের কণ্ঠ/১৯জানুয়ারি/আর.কে)

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related Articles